বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ভারতে ৮ মুসলিম বন্দীকে গুলী করে হত্যা

সংগ্রাম ডেস্ক : ভারতে মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের ভোপালে জেল ভেঙে পালানো আট বন্দীকে গুলী করে হত্যা করেছে পুলিশ। নিহত সবাই স্টুডেন্টস ইসলামিক মুভমেন্ট অব ইন্ডিয়ার (এসআইএমআই-সিমি) সদস্য বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ভোপালের উপকণ্ঠে এইনথখেড়ি গ্রামে পুলিশের গুলীতে এই আট বন্দীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন। এর আগের খবরে বলা হয়, স্টিলের প্লেট দিয়ে এক নিরাপত্তা কর্মীকে গলা কেটে হত্যার পর সোমবার বন্দীরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালানোর অভিযোগে বিচারের জন্য তাদের অধিকাংশকে এ কারাগারে গত তিন বছর ধরে রাখা হয়েছে। তাদের দু’জনকে গত ফেব্রুয়ারি মাসে গ্রেফতার করা হয়।

ভুপাল পুলিশের মহাপরিদর্শক যোগেশ চৌধুরী বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘এখন আমরা পালিয়ে যাওয়া আসামীদের গ্রেফতারের ওপর বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি। এছাড়া তারা ওই কারাগার থেকে কিভাবে পালিয়ে গেল তা জানতেও তদন্ত চলছে’।

চৌধুরী আরো জানান, পালিয়ে যাওয়া এসব আসামী একই সেলে ছিল। কারাগারে খাওয়ার কাজে ব্যবহার করা স্টীলের প্লেট দিয়ে নিরাপত্তা কর্মীকে হত্যা করার পর তারা স্থানীয় সময় রাত ১২টা থেকে ২টার মধ্যে জেল থেকে পালিয়ে যায়। জেলের দেয়াল টপকিয়ে পালিয়ে যাওয়ার জন্য আসামীরা বিছানার চাদর একটার সাথে আরেকটা বেঁধে লম্বা করে নেয়।

এদিকে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ দেশে কয়েকটি ভয়াবহ বোমা হামলা চালানোর ঘটনায় এসআইএমআইকে অভিযুক্ত করে। তারা আরো জানায়, পাকিস্তানভিত্তিক বিভিন্ন উগ্রবাদী সংগঠনের সাথে গ্রুপটির সম্পর্ক রয়েছে।

এই আট পলাতক লোকদের খোঁজে রোববার রাত থেকেই ভোপাল ও তার আশেপাশের এলাকাজুড়ে ব্যাপক তল্লাশি অভিযান চলে। ভোপালে গিয়ে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করে দিল্লির অ্যান্টি টেরর উইং এবং স্পেশাল সেল। হাই অ্যালার্ট জারি করা হয় সব বাস স্ট্যান্ড ও রেল স্টেশনে। খতিয়ে দেখা হয় ভোপালের সব রাস্তার সিসিটিভি ফুটেজ। শেষ পর্যন্ত এইনথখেড়ি গ্রামে এই আটজনের খোঁজ পায় পুলিশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ