মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

মিরসরাইয়ে অদ্ভুত শিশুর জন্ম!

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : হাত, পা, মাথা সব আছে। এরপরও সে অদ্ভুত শিশু। কারণ তার মাথা অর্ধেক। শরীরের চামড়াগুলো প্লাষ্টিকের মতো। ডাক্তার ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে ক্যালসিয়ামের অভাব। এমন একটি শিশুর জন্ম হয়েছে বারইয়ারহাট জেনারেল হাসপাতালের ২০৪ নম্বর কক্ষে। শিশুটির জন্মদাতা ওসমানপুর ইউনিয়নের সাহেবদীনগর গ্রামের প্রবাসী সাইফুল ইসলাম ও ফাহমিদা আক্তার কলি দম্পতি। গত মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৪টায় বারইয়ারহাট জেনারেল হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে শিশুটির জন্ম হয়। বারইয়ারহাট জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে তাদের হাসপাতালে প্রসুতি রোগী ফাহমিদা আক্তার কলি ভর্তি হয়। বিকালে পেটে প্রসব ব্যথা শুরু হয়। পরে হাসপাতালে ডাক্তার শামীম আরা নাসরিন অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে কলির একটি ছেলে সন্তান হয়। কিন্তু ছেলেটি ছিল অদ্ভুত। তার শরীরের চামড়াগুলো কুচকানো। দেখতে প্লাস্টিকের মতো। মাথাটা অর্ধেক। কিন্তু চুল আছে। ডাক্তারের ধারণা ক্যালসিয়ামের অভাবে এমনটা হয়েছে। বারইয়ারহাট জেনারেল হাসপাতালের চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন চৌধুরী ও গাইনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক শামীম আরা নাসরিন জানান, প্রসূতি ফাহমিদা আক্তার কলি আমাদের হাসপাতালে ভর্তি হয়। ওই দিন বিকালে তার একটি ছেলের জন্ম হয়। কিন্তু ছেলেটির অর্ধ মস্তক ও শরীরের চামড়াগুলো অদ্ভুত। একলামসিয়া রোগে আক্রান্ত হওয়ায় এমন সমস্যা হয়েছে বলে তিনি জানান। তবে মা ও শিশু এখন সুস্থ এবং স্বাভাবিক রয়েছে। এই অদ্ভুত অর্ধ মস্তক শিশুকে দেখতে শত শত উৎসুক জনতা হাসপাতালে ভিড় করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ