শনিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২০
Online Edition

স্মৃতির ক্রীতদাস

কাজী রিয়াজুল ইসলাম

কখনো যে এমন ভাবনার নক্ষত্র ওঠে না জ্বলে ঠিক তা নয়:
আহা, সেই গাজর রঙের শিশু-কৈশোরকাল কোনো ছলে
আবারও করতে পারতাম যদি জয়
সময়ের বিপরীত ¯্রােতে সাঁতার কেটে কেটে চলে;
তখন বয়সকে বাঁধতাম না কখনো আর সময়ের কপিকলে।

সত্যিই আজ সেই সোনালি দিনের ¯্রােতস্বিনী নদী পাই ফিরে
মেতে উঠি সে কী হৈহুল্লোড়ে সুমিষ্ট রঙিন জলের মাঝে,
দেখি, মরা পদ্মায় জেগেছে ঢেউ জলরাশি চিরে চিরে
জীবাশ্ম হয়ে যাওয়া আমাদের সেই আমগাছে
অসময়ে সিঁদুরে রাঙানো আমে আমে ভরে আছে,
গাছে উঠতে গিয়ে পা ফসকে নিচে যাই পড়ে,
আঘাত পেয়ে গলা ফাটিয়ে সেকি চিল্লায়ে উঠি সজোরে,
ঘুম ভেঙে যায়। ফজরের আযানধ্বনি শুনি একটু পরে।

এই ভাবে চলছে অসীম আকাশ ছোঁয়ার ভাবনার বিমান
সারাক্ষণ, যা থামতে চায় না; কণ্ঠে শুধু সময়ের বাউল গান।
জীবনের দিগন্তরেখায় ডুবে গিয়ে আবারও জাগে সূর্য
কখনো ভাবি না এই সব ভাবনা এতই যে জঞ্জাল-তুচ্ছ-
যা দিয়ে এই বিজ্ঞানের যুগেও তৈরী হবে না বায়োগ্যাস
অথচ, কিছুতেই ভেবে না তো পাই :
মাঝে মাঝে স্মৃতির ক্রীতদাস
কেনোই যে হয়ে  যাই!

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ