শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

প্রতিহিংসা আর বিভেদের রাজনীতি দেশকে পিছিয়ে দিচ্ছে -শিবির সভাপতি

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি আতিকুর রহমান বলেছেন, আওয়ামী সরকার যে প্রতিহিংসার রাজনীতির চর্চা করছে তা দেশের জন্য বিষফোঁড়া হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই বিভেদের রাজনীতিই বাংলাদেশকে বার বার পিছিয়ে দিচ্ছে।
গতকাল সোমবার ছাত্রশিবির গাজিপুর জেলা আয়োজিত থানা দায়িত্বশীল সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
শিবির সভাপতি বলেন, দেশকে সার্বিকভাবে উন্নতির জন্য দলমত নির্বিশেষে জাতীয় ঐক্যের যে বড় প্রয়োজন আছে, তা সরকারের মাথায় আছে বলে মনে হয় না। কারণ দেশবাসী দেখে আসছে নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করতেই আওয়ামী সরকার ব্যস্ত। এর জন্য হাতিয়ার হিসেবে তারা বিভাজনের রাজনীতিকে বেছে নিয়েছে। যা বার বার জাতির সামনে পরিলক্ষিত হচ্ছে। যার সর্বশেষ প্রমাণ হলো নবনির্বাচিত জামায়াতে ইসলামীর আমীরকে নিয়ে অপরাজনীতি ও মিথ্যাচার। যিনি দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে এদেশে রাজনীতি করেছেন এমনকি জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর হিসেবে ৬ বছরের অধিক সময় দায়িত্ব পালন করেছেন কোন প্রকার অভিযোগ ছাড়াই, জামায়াতের আমীর নির্বাচিত হওয়ার সাথে সাথে তাকে যুদ্ধাপরাধের তকমা লাগিয়ে দেয়ার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে অবৈধ সরকার ও তার দোষররা। যা আওয়ামীলীগের রাজনৈতিক দৈন্যদশাকে দেশবাসীর সামনে আবারো স্পষ্ট করেছে।
তিনি বলেন, নৈতিকতা সম্পন্ন যোগ্য নেতত্ব তৈরীর মাধ্যমে সমৃদ্ধ জাতি গঠনের লক্ষ্য নিয়ে ছাত্রশিবিরের যাত্রা শুরু হয়েছিল। কিন্তু বাতিল শক্তি ছাত্রশিবিরের পথ চলার বাকে বাকে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। প্রতিদিনই ছাত্রশিবিরের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের ডাল পালা বিস্তৃত হচ্ছে। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। বরং প্রতিটি বাধা, প্রতিটি আঘাত ছাত্রশিবিরের পথ চলাকে তীব্র থেকে তীব্র করেছে। বর্তমান সরকার ছাত্রশিবিরের উপর সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় শক্তি প্রয়োগ করে দমাতে চেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু বাস্তবতা হলো তাতে করে আমাদের পথ চলা থেমে যায়নি। বরং শিক্ষার্থীরা আগের চেয়ে বেশি হারে ছাত্রশিবিরের গঠনমূলক পথ চলার সাথে সম্পৃক্ত হচ্ছে। সুতরাং গুম, খুন, জুলুম নির্যাতন অপপ্রচার করে ছাত্রশিবিরকে দমানো যাবেনা বরং প্রতিটি অনৈতিক বাধাকে আদর্শ দিয়ে মোকাবেলা আমরা এগিয়ে যাব ইনশাআল্লাহ। সময় আসছে, একদিন বাংলাদেশের জনসাধারণ আদর্শচ্যুত সব বস্তাপঁচা রাজনৈতিক মতবাদ ছুঁড়ে ফেলে ইসলামী আন্দোলনের পথকে বেছে নেবে। অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশের প্রতিটি প্রান্তে ছাত্রশিবিরের নাম আরো শক্তিশালী ভাবে উচ্চারিত হবে ইনশাআল্লাহ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ