সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

সামাজিক বিরোধকে কেন্দ্র করে মসজিদ সভাপতি খুন

কালিহাতী (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা : কালিহাতী উপজেলার কোকডহরা ইউনিয়নের মহিষজোড়া জামে মসজিদ ও মাদরাসার সভাপতি আঃ খালেক (৭৫) কে গত শনিবার মধ্যরাতে হত্যা করা হয়েছে।
মহিষজোড়া গ্রামের মহির উদ্দিন বলেন,তার হাতে, মাথায় ও পুংলিঙ্গে আমরা আঘাত লক্ষ্য করেছি,এখানে ওসিসহ পুলিশ এসেছে তারা এই গলা দেখেছে। তার দোষ একটাই গ্রামের মাতব্বর এবং মসজিদ ও মাদরাসার সভাপতি। মসজিদ-মাদরাসার জন্য সে লড়তেছে বিগত ২০ বছর যাবত,নিজের স্বার্থের জন্য কিছুই করে নাই সে, মহিষজোড়া গ্রামের ২১০/১২ ঘরকে সে একত্রে রাখছে। আমরা এই হত্যার সুষ্ঠু ও সঠিক বিচার চাই।
নিহত আঃ খালেকের মেঝ ছেলে এ্যাড. তোয়াজ উদ্দিন কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, মসজিদ-মাদরাসার নামে বরাদ্দকৃত ৭৭ শতাংশ পুকুর নিয়ে প্রায় ২০-২৫ বছর যাবত বিরোধ চলে আসছে,এ বিরোধকে কেন্দ্র করে তিন মাস আগেও উনার এবং উনার নাতি,আমার ফুফুর উপর হামলা করে মারাত্মক আহত করে। পূর্ববর্তী মামলার আসামী নুরু,সাত্তার,আকাশ,রিপন,ফরিদ,আহাদুল্লাহ মন্ডল, আনোয়ার, বাকের,মজিবর গং এরা সমাজের ধিকৃত খুনি, আমরা এদের বিচার চাই। এ নিয়ে কালিহাতী থানা ও আমলী আদালতে আমাদের তিনটি মামলা চলমান। জানাযা ও দাফন শেষে আমরা আইনি প্রক্রিয়ায় যাব।
লাশ ময়নাতদন্ত শেষে বাড়ীতে নিয়ে আসলে শত শত লোকজন ভিড় জমায়, এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।
কালিহাতী থানার অফিসার ইনচার্জ খ. মোঃ আখেরুজ্জামান বলেন, লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে,জানাযা শেষে লাশ দাফনের প্রস্তুতি চলছে।
পরিবেশ স্বাভাবিক ও পুলিশ মোতায়েন আছে। অভিযোগ পাওয়া মাত্রই দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ