সোমবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

ভোলাহাটে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব : আক্রান্ত ১৯

ভোলাহাট (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সংবাদদাতা : চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাটে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। গত দু’দিনে ভোলাহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। মেঝেতে রোগীদের জায়গা নিতে হয়েছে।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গোহালবাড়ী ইউনিয়নের গোহালবাড়ী গ্রাম ও খালেআলমপুরের বেশীরভাগ ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হয়েছে। এ ছাড়াও উপজেলার জামবাড়ীয়া ইউনিয়নের খাসপাড়া, গোহালবাড়ী ইউনিয়নের বজরাটেক, বীরেশ্বরপুর, ইমামনগর, ভোলাহাট ইউনিয়নের তেলীপাড়া, বাহাদুরগঞ্জসহ বিভিন্ন জায়গাতে ডায়রিয়ার প্রকোপ প্রচণ্ডভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। গত ২০ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে ১৯ জন ডায়রিয়া রুগী। তবে গোহালবাড়ী ও খালেআলমপুর গ্রামে মাত্রাতিরিক্ত ভাবে ডায়রিয়া দেখা দিয়েছে। এ দু’গ্রামে ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ার কারণ হিসেবে সচেতনমহল জানান, গ্রাম দু’টিতে এলাকার মানুষ অসচেতন। তারা পুকুরের পানিতে বিভিন্ন প্রকার নোংরা আবর্জনা ফেলে রাখে। নোংরা আবর্জনা ফেলে রাখা পুকুরের পানিতে এলাকার মানুষ গোসল করা, থালা-বাসন পরিষ্কার করাসহ গরুর ভুঁড়ি ও পোল্ট্রি মাংস ধোয়া এবং বিভিন্ন কাজে ঐ পানি ব্যবহার করে থাকে। তা’ছাড়া কুয়ার পানি পান করার কারণে ডায়রিয়ার প্রকোপ দিন দিন বেড়েই চলেছে। উল্লেখ্য চার বছর পূর্বে এ দু’গ্রামে প্রচণ্ডভাবে ডায়রিয়া বেড়ে যাওয়ায় স্থানীয় ও উচ্চ পর্যায়ের বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারী কর্তৃপক্ষ গ্রামগুলো পরিদর্শন করে বিভিন্ন ভাবে সচেতনতা বৃদ্ধি করেন। মাঝে মধ্যে এ গ্রাম দু’টির ডায়রিয়া নিয়ে এলাকায় বেশ আতংক ছড়িয়ে পড়ছে। এ ব্যাপারে ভোলাহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডাঃ মেহফুজ জানান, এলাকার মানুষ সচেতন না হলে ডায়রিয়া আরো বৃদ্ধি পাওয়ার আশংকা প্রকাশ করেন। তবে আবহাওয়া পরিবর্তনের হওয়ায় রোটা ভাইরাস আক্রান্তের কারণও ছোট করে দেখা যাবে না বলে জানান। তিনি আরো বলেন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পক্ষ থেকে সব ধরণের চিকিৎসা সেবা ও সচেতনতা বৃদ্ধির ব্যাপারে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ