বুধবার ২৭ মে ২০২০
Online Edition

লালমনিরহাট জেলা পরিষদে নির্বাচনী হাওয়া বইছে

লালমনিরহাট সংবাদদাতা : গত ২০১১ সালের ১৫ ডিসেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতাদের, বর্তমান সরকার জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিল। তাদের মেয়াদ পূর্তিতে আগামী ডিসেম্বর মাসে জেলা পরিষদ নির্বাচন হওয়ার অনেকটাই সম্ভাবনা রয়েছে। এ নির্বাচনে লালমনিরহাটের উপজেলা চেয়ারম্যন, ভাইস-চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যরা এ জেলার ৬ শত ২৬ জন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়। এদিকে বর্তমান জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট মোঃ মতিয়ার রহমান চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়ে আগাম প্রচারণায় নেমেছেন বলে বিভিন্ন মাধ্যমে শোনা যাচ্ছে। এছাড়া জেলার আ’লীগের স্থানীয় নেতা-কর্মীদের মাঝেও আলাপ-আলোচনা শুরু হয়েছে। লালমনিরহাট সদর উপজেলার হারাটী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক জানান, দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক যাকে প্রার্থী দিবে তাকেই আমরা ভোট দেব। এবারে জেলা পরিষদের ভোটে শুধু মাত্র সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরাই ভোট দেয়ার নিয়ম থাকায় তাদের পোয়া-বারো হবে বলে অনেকে মন্তব্য করেছেন। ২১ অক্টোবর (শুক্রবার) লালমনিরহাট জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল হালিম দৈনিক সংগ্রামকে জানিয়েছেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে। তবে স্থানীয় বিএনপির নেতা-কর্মীদের মাঝে কে হবে প্রার্থী এ নিয়ে হোটেল-মোটেলে আলাপ-আলোচনা চলছে। তবে জেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝেও নানা আলোচনার কথা শোনা যাচ্ছে। এ ব্যাপারে লালমনিরহাট জেলা নির্বাচন অফিসে যোগাযোগ করা হলে নির্বাচনের সঠিক কোন দিন তারিখ জানাতে পারেনি। লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক গত ২৪ আগস্ট লালমনিরহাট জেলা পরিষদের ওয়ার্ডের সীমানা নির্ধারণ করে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন। উল্লেখ্য, বাংলাদেশের ৩ পার্বত্য জেলা বাদে ৬১ জেলায় জেলা পরিষদ প্রশাসক নিয়োগ দিয়েছিল, এর মেয়াদ পূর্তিতে নির্বাচন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বর্তমান সরকার।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ