বুধবার ২৭ মে ২০২০
Online Edition

আওয়ামী লীগের কাউন্সিল ঘিরে হুমকি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের কাউন্সিলকে সামনে রেখে কোনো হুমকির শঙ্কা নেই। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সরকারি দলের দুদিনব্যাপী কাউন্সিল শুরুর আগের দিন গতকাল শুক্রবার সকালে রাজধানীর বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেশন সেন্টারে ডিজিটাল ওয়াল্ড-২০১৬ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সারা বাংলাদেশ আজ উৎসবমুখর হয়েছে। সারা বাংলাদেশ তাকিয়ে আছে আওয়ামী লীগের কাউন্সিলের দিকে। সারা দেশ থেকে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা ঢাকায় আসছে। কাজেই এখানে থ্রেট-ট্রেট আমরা কিছু মনে করি না। আর সবচেয়ে বড় কথা আমাদের প্রধানমন্ত্রীর ডাকে সারা দেশের মানুষ এক হয়েছে এই জঙ্গিদের বিরুদ্ধে। সেজন্য আমরা মনে করি, জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে আর কোনো শক্তি আমাদের সমস্যায় ফেলতে পারবে না। তাছাড়া ‘কাউন্সিলের সিকিউরিটি ভালো আছে’ বলেও মন্তব্য করেন কামাল। 

তিনি বলেন, আধুনিক প্রযুক্তি ও নিত্য নতুন কলা-কৌশল ব্যবহার করে যেসব জঙ্গি গোষ্ঠী বাংলাদেশের শান্তি, সমৃদ্ধি ও স্থিতিশীলতা বিনষ্ট করতে চেয়েছিল, বাংলাদেশ পুলিশ তাদের দমনে স্বাক্ষর রেখে চলেছে। জঙ্গিদের চেয়ে তথ্য প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ পিছিয়ে কিনা জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অবশ্যই আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী পিছিয়ে নেই। জঙ্গিরা যেরকম অ্যাডভান্স হচ্ছে, আমাদের প্রযুক্তি দিয়ে আমরা সেসব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে যাচ্ছি। আমাদের কাছে কোনো চ্যালেঞ্জই চ্যালেঞ্জ না। আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তা না হলে এসব জঙ্গিদের ধরছি কীভাবে? জঙ্গিদের অর্থদাতা কতজন আছে- এমন এক প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, কতজন আছে সেটা বলতে পারবো না। যারাই অর্থ দান করছে, তাদের আমরা সনাক্ত করছি এবং তাদেরকে ধরছি।

সম্মেলনস্থলে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা, আইজিপি: পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, আওয়ামী লীগের সম্মেলনস্থলে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিতে সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনের মঞ্চ ও এর আশপাশের স্থান পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান।

আইজিপি বলেন, এই সম্মেলনকে ঘিরে ব্যপক আয়োজন করা হয়েছে। পুরো এলাকা সিসিটিভি ক্যামারার নজরদারিতে রাখা হবে। এক কথায় সম্মেলনের নিরাপত্তায় পুলিশের পক্ষ থেকে সকল ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, সারা শহরে প্রায় ১০ হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকবে। সম্মেলনস্থলে ডিএমপি কমিশনারসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে পুরো নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করবেন।

তিনি বলেন, সম্মেলনে ৫২ জন বিদেশী উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। তারা কে কোন পথে যাতায়াত করবেন সে বিষয়ে দলীয়ভাবে ও পুলিশের পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সাধারণ জনগণের চলাচল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সারাদিন ভিভিআইপি, ভিআইপিরা চলাচল করবেন না। তারা চলাচল যখন করবে তখন গাড়ি চলাচল নিয়ন্ত্রন করা হবে। বাকি সময় স্বাভাবিক থাকবে। আগামী ২২ ও ২৩ অক্টোবর রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ