রবিবার ৩১ মে ২০২০
Online Edition

দীর্ঘ ৪৫ বছরেও দেশের কোন নাগরিক সামান্যতম অভিযোগ উত্থাপন করেননি -অধ্যাপক মুজিব

  • জামায়াতে ইসলামী ও নেতৃত্বকে ক্ষতিগ্রস্ত করার সরকারি ষড়যন্ত্রের সর্বশেষ নিকৃষ্ট উদ্যোগ

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নতুন আমীর মকবুল আহমাদ সম্পর্কে আইসিটির তদন্ত সংস্থা প্রধান আবদুল হান্নানের বানোয়াট বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নতুন আমীর মকবুল আহমাদ সম্পর্কে আইসিটির তদন্ত সংস্থা প্রধান আবদুল হান্নান যে সব অভিযোগ করেছেন তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন অসত্য। 

গতকাল শুক্রবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, নতুন আমীর মকবুল আহমাদ তার কর্মজীবনের সূচনায় ফেনীর দুটি স্বনামধন্য উচ্চ বিদ্যালয়ে অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে শিক্ষকতার দায়িত্ব পালন করেন। নির্মল চরিত্রের এই শিক্ষক তার ছাত্র-ছাত্রী ও সহকর্মী এবং সর্বস্তরের মানুষের কাছে অত্যন্ত শ্রদ্ধাভাজন সজ্জন ব্যক্তি। এমন একজন খ্যাতিমান সার্বক্ষণিক শিক্ষকের রাজাকার থাকা কিংবা মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার প্রশ্নই আসে না। শিক্ষকতার পেশায় নিয়োজিত একজন ব্যক্তির রাজাকার থাকার কথা কোন অবোধ শিশুও বিশ্বাস করবে না। তাই ঐ এলাকার রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করার জন্য তিনি আবদুল হান্নানের প্রতি আহ্বান জানান। 

তিনি বলেন, কোন মানুষকে হত্যা বা হিন্দুদের বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ করা বা নির্দেশদানের সাথে মকবুল আহমাদের জড়িত থাকার প্রশ্নও অবান্তর। মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মীর আবদুল হান্নান ও শরীয়ত উল্যাহ বাঙালী’র বরাত দিয়ে মকবুল আহমাদের নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজ উদ্দিনকে হত্যা ও লালপুর গ্রামে হিন্দু পাড়ায় অগ্নিসংযোগ করে ১০জনকে হত্যা করার যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সর্বৈব মিথ্যা। 

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার পর দীর্ঘ ৪৫ বছর অতিবাহিত হয়ে গেলেও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কোন সদস্য, আত্মীয়-স্বজন, সুভাকাক্সক্ষী কিংবা দেশের কোন নাগরিক তার বিরুদ্ধে সামান্যতম কোন অভিযোগ উত্থাপন করেননি। এ থেকেই প্রমাণিত হয় তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার ষড়যন্ত্র। জামায়াতে ইসলামী ও তার নেতৃত্বকে ক্ষতিগ্রস্ত করার সরকারি ষড়যন্ত্রের এটি হচ্ছে সর্বশেষ নিকৃষ্ট উদ্যোগ। তিনি ছয় বছরের অধিক সময় জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর হিসেবে দায়িত্ব পালন করে এসেছেন। তিনি সমাজের কিংবা দেশের কোন অপরিচিত ব্যক্তি নন। ভারপ্রাপ্ত আমীরের দায়িত্ব পালনকালীনও তার বিরুদ্ধে এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ কেউ উত্থাপন করতে পারেনি। সরকারকে এ ধরনের নোংরা রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্য তিনি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ