ঢাকা, মঙ্গলবার 29 September 2020, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

খাদিজার পর এবার লক্ষ্মীপুরে কলেজ ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

অনলাইন ডেস্ক:সিলেটের কলেজ ছাত্রী খাদিজার আক্তার নার্গিসের উপর হামলার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার লক্ষ্মীপুরে এক কলেজছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টার খবর পাওয়া গেছে। ফারহানা আক্তার নামে ওই ছাত্রীকে গতরাতে আশঙ্কাজনক অবস্থায় লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে শহরের শাখারীপাড়া এলাকায় এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান, কলেজ ছাত্রী ফারহানা শহরের শাখারীপাড়া ছোটপুল এলাকায় সবিতা রাণী নামে এক মহিলার বাসায় থেকে লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজে উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ডিগ্রী পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। তিনি পাবনা জেলার ভাঙ্গুরা উপজেলার আদাবাড়িয়া গ্রামের আবদুর রহমান খানের মেয়ে। তিনি সেইভ দ্যা চিলড্রেন এর মা-মনি প্রকল্পের কর্মী ছিলেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ফারহানা সাংবাদিকদের জানান, লক্ষ্মীপুরে কর্মরত অবস্থায় লক্ষ্মীপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আশফাকুর রহমান মামুনের সঙ্গে তার সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর ৩০ লাখ টাকা দেনমোহরে সিলেট এলাকার সুরমা ভ্যালী রেস্ট হাউজে ডা. ইমামুলের মধ্যস্থতায় তাদের বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর ডা. আশফাকুর ফারহানাকে স্ত্রী হিসেবে পরিচয় দিতেন না এবং এ নিয়ে তাদের মধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি হয়। ফারহানা জানান, তিনি মোবাইল ফোনে আশফাকুরের সাথে তার বিয়ে সংক্রান্ত সব কথাবার্তা সব কিছু রেকর্ড করে রেখেছেন।কিন্তু ডা. আশফাকুর রহমান সম্পর্ক অস্বীকার করার পাশাপাশি তাকে মোবাইল ফোনে হত্যার হুমকি দেন এবং লক্ষ্মীপুরে আসতে নিষেধ করেন। তার ভয়ে ফারহানা গত ২৩ তারিখে লক্ষ্মীপুরে পরীক্ষা দিতে আসিননি। পরে শুক্রবারের পরীক্ষা দিতে লক্ষ্মীপুরে আসায় ডা. আশফাকুর রহমান ফারহানাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার ভাড়াটে সন্ত্রাসী দিয়ে তার উপর হামলা চালান।

লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আনোয়ার হোসেন জানান, আহত কলেজ ছাত্রী ফারহানাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার পেটে ও বুকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

খবর পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মো. শাহনেওয়াজ ও সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্যাহ আল- মামুন ভূইয়া সদর হাসপাতালে আহত কলেজ ছাত্রীকে দেখতে গিয়ে জানান, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ