ঢাকা, শনিবার 15 August 2020, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

সিরিয়ায় মার্কিন নেতৃত্বাধীন যৌথবাহিনীর বিমান হামলায় ৮৩ সরকারী সৈন্য নিহত

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে সিরিয়ার সেনাবাহিনীর একটি অবস্থানের উপর মার্কিন নেতৃত্বাধীন যৌথবাহিনীর বিমান হামলায় কমপক্ষে ৮৩ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরো কমপক্ষে ১২০ জন। লন্ডন ভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটসের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা সিএনএন হতাহতের এই সংখ্যা উল্লেখ করেছে।

শনিবার দিবাগত রাতে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

তবে রুশ সেনাবাহিনী রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা স্পুটনিক নিউজ এজেন্সী’র বরাত দিযে বলেছে, দেইর ইজর বিমান বন্দরের নিকটবর্তী এলাকায় মার্কিন নেতৃত্বাধীন যৌথবাহিনীর হামলায় কমপক্ষে ৬২ জন নিহত হযেছে।

বিবিসির খবরেও নিহতের সংখ্যা ৬২ জন উল্লেখ করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী এ প্রসঙ্গে বলেছে, সিরিয় সৈন্যদের উপর একটি বিমান হামলা হয়ে থাকতে পারে, তবে যৌথবাহিনী ভেবেছিল এটি হয়তো আইসিস জঙ্গিদের কোন গোপন ঘাঁটি হবে।

সিরিয়ায় সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াইরত তথাকথিত ইসলামী স্টেটস’র সৈন্যরা

তবে মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ড’র এক বিবৃতিতে বলা হয়, যৌথবাহিনীর হামলার পূর্বে রুশ সেনাবাহিনী উপস্থিত ছিল এবং তাদেরকে হামলার ব্যাপারে অবহিতও করা হয়েছিল, তখন তারা কিছু বলেনি, কিন্তু যখনিই বলেছে যে, এটা সিরিয় সেনাবাহিনীর কোন অংশ হতে পারে, তখনই সাথে সাথে হামলা বন্ধ করা হয়েছে।

মার্কিন সামরিক সূত্রের বরাত দিয়ে সিএনএন বলেছে, হামলার পূর্বে ভৌগলিক অবস্থানের বিস্তারিত বর্ণনা রাশিয়াকে জানানো হয়েছিল। কিন্তু হামলা শুরুর পর যখন প্রায় ২৫ মিনিট সময় পার হয়ে গেছে, তখন রুশ কর্মকর্তারা যক্তরাষ্ট্রকে বলে যে, যৌথবাহিনী সিরিয় সৈন্যদের উপর হামলা করছে।যুক্তরাষ্ট্র তাৎক্ষণাৎ হামলা বন্ধ করে এবং ঐ এলাকার পরিকল্পিত আর কোন নিশানায় আক্রমন করেনি।

এদিকে সিরিয়ায় মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলার ঘটনা পর্যালোচনা করার জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা বাহিনীর জরুরী বৈঠক ডেকেছে রাশিয়া।জাতিসংঘের একটি কূটনৈতিক সূত্রের বরাত দিয়ে সিএনএন এই খবর জানিয়েছে।

এ ঘটনায় সিরিয়ার দুর্বল যুদ্ধবিরতি আবারো হুমকির মুখে পড়ল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ