ঢাকা, বুধবার 12 August 2020, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

অনলাইন ডেস্ক: টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার সকাল ১০টার দিকে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। এর পরপরই তিনি সমাধি বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

স্বশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল এ সময় সশস্ত্র সালাম জানায়। বিউগলে বাজানো হয় করুণ সুর।

পরে আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতারা দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

শ্রদ্ধা নিবেদনের পর প্রধানমন্ত্রী সমাধি বেদীর পাশে কিছু সময় নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন।

বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানা, প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে সায়মা হোসেন পুতুল, আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের মধ্যে আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, মতিয়া চৌধুরী, কাজী জাফরুল্লাহ, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ, আ ক ম মোজাম্মেল হক, ফারুক খান, আসাদুজ্জামান খান কামাল, জাহাঙ্গীর কবির নানক, বাহাউদ্দিন নাসিম, মেহের আফরোজ চুমকি ও তারানা হালিম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

তিন বাহিনীর প্রধান, মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও মুখ্যসচিবসহ সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসনের কর্মকর্তারাও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

শ্রদ্ধা নিবেদনের পর ১৯৭৫ এর ১৫ অগাস্টে নিহত বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের জন্য বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা।

প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিসভার সদস্য ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা পরে সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সে মিলাদ মাহফিলে অংশ নেন।

প্রধানমন্ত্রী ঢাকার উদ্দেশ্যে টুঙ্গিপাড়া ত্যাগ করলে সমাধিপ্রাঙ্গণ সবার জন্য্ খুলে দেওয়া হবে। সর্বস্তরের মানুষ এরপর বঙ্গবন্ধুর কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবে।

১৯৭৫ সালের এই দিনে সেনাবাহিনীর একদল কর্মকর্তা ও সৈনিকের হাতে সপরিবারে জীবন দিতে হয় স্বাধীনতা সংগ্রামের নায়ক ও তৎকালীন রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবকে।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ১৫ অগাস্ট সরকারি ছুটির দিন। সরকারি কর্মসূচির পাশাপাশি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নানা কর্মসূচিতে দিনটি পালন করছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ