ঢাকা, বৃহস্পতিবার 2 December 2021, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
Online Edition

দ্বিগুণ হল বিচারপতিদের বেতন-ভাতা

অনলাইন ডেস্ক: উচ্চ আদালতের বিচারপতিদের বেতন-ভাতা দ্বিগুণ করতে সংসদে বিল পাস হয়েছে।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক মঙ্গলবার সংসদে ‘সুপ্রিম কোর্ট জাজেস (রেমুনারেশন অ্যান্ড প্রিভিলেজেস) সংশোধন বিল-২০১৬’ পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠ ভোটে পাস হয়।

বিল সম্পর্কে আইনমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে জীবন যাত্রার ব্যয় বৃদ্ধি, মূ্ল্যস্ফীতি এবং দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার প্রেক্ষাপটসহ সরকারি কর্মচারীদের জন্য অষ্টম বেতন স্কেল ঘোষণা করার কারণে বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি, আপিল বিভাগ এবং হাই কোর্ট বিভাগের বিচারকদের জন্য সময়োপযোগী বেতন- ভাতা নির্ধারণ করা প্রয়োজন।

বিলে প্রধান বিচারপতির বেতন ৫৬ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে এক লাখ ১০ হাজার টাকা, ব্যয় নিয়ামক ভাতা সাত হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ১২ হাজার টাকা, ‘ডমেস্টিক এইড’ ভাতা এক হাজার ৬২৫ থেকে বাড়িয়ে পাঁচ হাজার টাকা, কার অ্যালাউন্স অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের আগ পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহারের ক্ষেত্রে ১৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ২৫ হাজার টাকা এবং অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের আগ পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার না করলে এক হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে দুই হাজার টাকা করার কথা বলা হয়েছে।

আপিল বিভাগের বিচারপতিদের বেতন ৫৩ হাজার একশ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক লাখ পাঁচ হাজার টাকা, ব্যয় নিয়ামক ভাতা পাঁচ হাজার থেকে বাড়িয়ে আট হাজার, ‘ডমেস্টিক এইড’ ভাতা এক হাজার ৪৬৫ থেকে বাড়িয়ে সাড়ে চার হাজার টাকা, রেসিডেন্স অ্যালাউন্স (অফিসিয়াল বাসা বরাদ্দের আগ পর্যন্ত) ২৬ হাজার ছয়শ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫০ হাজার ছয়শ টাকা, কার অ্যালাউন্স- অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের আগ পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহারের ক্ষেত্রে ১৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ২৫ হাজার টাকা এবং অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের আগ পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার না করলে এক হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে দুই হাজার টাকা করা হয়েছে।

হাই কোর্ট বিভাগের বিচারপতিদের বেতন ৪৯ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৯৫ হাজার টাকা, ব্যয় নিয়ামক ভাতা তিন হাজার থেকে বাড়িয়ে পাঁচ হাজার টাকা, ‘ডমেস্টিক এইড’ ভাতা এক হাজার তিনশ থেকে বাড়িয়ে চার হাজার টাকা, রেসিডেন্স অ্যালাউন্স (অফিসিয়াল বাসা বরাদ্দের আগ পর্যন্ত) ২৬ হাজার ৬০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫০ হাজার ৬০০ টাকা, কার অ্যালাউন্স অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের আগ পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহারের ক্ষেত্রে  ১৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ২৫ হাজার টাকা এবং অফিসিয়াল গাড়ি সরবরাহের আগ পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার না করলে এক হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে দুই হাজার টাকা করার বিধান রাখা হয়েছে।

প্রধান বিচারপতিসহ সব বিচারপতি বছরে দুবার মূল বেতনের সমান উৎসব ভাতা এবং ২০ শতাংশ বাংলা নববর্ষ ভাতা পাবেন বলে বিলে বলা হয়েছে।

গত ৫ মে বিলটি সংসদে তোলেন আইনমন্ত্রী। পরে সেটি পরীক্ষা করে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

বিলটি নিয়ে সংসদীয় কমিটি আলোচনার সময় সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তিনি আসেননি।

গত ২৪ জুলাই বিলটির প্রতিবেদন সংসদে উপস্থাপনের সময় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, “৭ম, ৮ম, ৯ম জাতীয় সংসদের বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারগণ জাতীয় সংসদের কমিটির আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে উপস্থিত থাকলেও বর্তমানে কমিটিতে বিবেচনাধীন তাদের দুটি বিলের বিষয়ে মতামত জানাতে উপস্থিত হননি।

“বরং তারা রহস্যজনক কারণে ভিন্নমত পোষণ করেছেন। এর ফলে কমিটিতে বিল দুটো পরীক্ষায় জটিলতার সৃষ্টি হয় এবং বিল দুটি পরীক্ষান্তে রিপোর্ট প্রদানে বিলম্ব হয়। কমিটিতে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল না আসাকে কমিটি অনভিপ্রেত মনে করছে।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ