ঢাকা, রোববার 9 August 2020, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

গরুর মাংস বহন করায় গোবর খাইয়ে শাস্তি

অনলাইন ডেস্ক: গরুর মাংস বহন করার কাজে যুক্ত থাকার অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে গোবরের মিশ্রণ খাওয়ানোর অভিযোগ উঠল ভারতের হরিয়ানায়। গত ১০ জুন এ ঘটনা ঘটলেও গতকাল এ ঘটনাটিরভিডিও প্রকাশ করা হয়। 

ওই ভিডিওটিতেই গোরক্ষা দলের কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবকদের বিরুদ্ধে দুই ব্যক্তিকে জোর করে গোবর, গোমূত্র, গরুর দুধ, দই ও ঘি মিশ্রিত একটি তরল পদার্থ জোর করে খাওয়াতে দেখা যায়।

পুরো ঘটনাটি স্বীকার করে ‘গুরগাঁও গোরক্ষ দল’এর সভাপতি ধর্মেন্দ্র যাদব জানান, ‘গত ১০ জুন গোপন সূত্রে খবর পেয়ে কুণ্ডলি-মানেসার-পাওয়াল এক্সপ্রেসওয়েতে একটি গাড়িকে আটকানো হয়। ওই সংগঠনের দাবি, গাড়ির দুই আরোহী রিওয়ান ও মুখতিয়ার ৭০০ কেজি গো মাংস মেওয়াত থেকে দিল্লিতে নিয়ে যাচ্ছিল’। 

ধর্মেন্দ্র আরও জানান ওই দুই ব্যক্তিকে আটক করার আগে তাদের গাড়িকে লক্ষ্য করে আমরা ৭ কিলোমিটার পর্যন্ত তাড়া করি। এরপর বদরপুর সীমান্তের কাছে ওদের আটক করা হয়। আমরা যখন তাদের আটক করলাম তখন তাদের গাড়ি থেকে প্রায় ৭০০ কেজি গরুর মাংস উদ্ধার করা হয়। এরপরই রিজওয়ান ও মুখতিয়ারকে জোর করে গোবরের মিশ্রন খাওয়ানো হয়। তাদের উচিত শিক্ষা দেওয়া এবং শুদ্ধিকরণের জন্যই এই গোবরের মিশ্রণ খাওয়ানো হয়েছে বলেও স্বীকার করেন ধর্মেন্দ্র যাদব। 

ঘটনার পর আটক দুই ব্যক্তিকে মারধর করা হয় এবং তারপর তুলে দেয়া হয় ফরিদাবাদ পুলিশের হাতে। গত ১০ জুন দুই ব্যক্তিকে আটক করার ঘটনা স্বীকার করে থানার স্টেশন হাউজ অফিসার অনিল কুমার জানিয়েছেন, ‘আমরা ওই গাড়ির চালক ও হেল্পারকে আটক করি। দুইজনকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। তাদের গাড়িতে থাকা মাংসটি গরুর মাংস বলে প্রমাণিত হয়েছে’। 

অন্যদিকে থানার পিআরও সুবে সিং জানান ‘আটক দুই ব্যক্তিকে গোবরের মিশ্রণ খাওয়ানো হয়েছিল কি না সেব্যাপারে আমাদের কিছু জানা নেই। কোথায় এই ঘটনাটা হয়েছিল, কারা এর সঙ্গে জড়িত তাও জানি না। ভিডিওটি যদি সত্যি হয় তবে মামলা দায়ের করা হবে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ