বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বাংলাদেশে খুন-খারাবি কম ঘটছে -স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আছে বলে দাবি করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, বর্তমানে গোটা বিশ্বে যে অস্থিরতা চলছে সে তুলনায় বাংলাদেশে খুন-খারাবি কম ঘটছে। বাংলাদেশের গোয়েন্দা বাহিনী তৎপর বলেই এ ধরনের ঘটনা কম ঘটছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন মন্ত্রী।
মার্কিন দূতাবাসের সাবেক কর্মকর্তা জুলহাসসহ দুজনের হত্যার ঘটনার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটি একটি টার্গেট কিলিং। হত্যার উদ্দেশ্যে (দুর্বৃত্তরা) এসে হত্যা করে চলে গেছে। বিচ্ছিন্ন এসব ঘটনা ঘটলেও দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেনি। এ ধরনের আরো যেসব ঘটনা ঘটেছে সেগুলোর মতো এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতরাও ধরা পড়বে। আর হত্যার রহস্যও আমরা উদ্ঘাটন করতে পারব।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন ও স্থিতিশীল পরিবেশকে বাধাগ্রস্ত করতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গোষ্ঠী ষড়যন্ত্র করছে। তাদের পরিকল্পনা আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রতিহত করছে। কলাবাগানের এই হত্যাকাণ্ড কেন ঘটল বলে মনে করেন এ ধরনের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন আর আমিও আগেই বলেছি কারো ধর্মীয় অনুভূতিতে বা বিশ্বাসে আঘাত  দেওয়ার অধিকার অন্য কারো নেই। সবাইকে সংযত হয়ে নিজের মতামত প্রকাশ করার অনুরোধ করছি। আমরা যতটুকু জেনেছি জুলহাস রূপবান নামে একটি পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। আর তিনি সমকামীদের অধিকার রক্ষায় কাজ করতেন। এটা আমাদের সমাজের সঙ্গে মানানসই না। জুলহাস নিজের জীবনের হুমকির কথা বলেছিলেন এবং নিরাপত্তা চেয়েছিলেন। সরকার নিরাপত্তা দিয়েছিল কি না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, তিনি (জুলহাস) নিরাপত্তা চেয়েছিলেন কি না আমার জানা নেই। জুলহাস যখন পত্রিকাটি বের করার জন্য অনুষ্ঠান করেন তখন সরকারের পক্ষ থেকে বাধা দেওয়া হয়নি কেন জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা জানতাম না পত্রিকাতে তিনি কী লিখবেন। আমরা আগেও বলেছি যে অন্যের বিশ্বাসের ওপর আঘাত দেওয়ার অধিকার কারো নেই। তনু হত্যা ও কাশিমপুর কারাগারের সাবেক প্রধান কারারক্ষী খুনের ব্যাপারে তিনি বলেন, এই দুই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা এক নয়। এই দুই হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে আমরা যেসব তথ্য পেয়েছি তা বলার মতো নয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ