রবিবার ৩১ মে ২০২০
Online Edition

ভেড়ামারায় সাবেক প্রধান শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ৮ জনকে আসামী করে মামলা

ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) সংবাদদাতা : ভেড়ামারার ফকিরাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মজিবর রহমান হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ৮ জনের নাম উল্লেখ করে ভেড়ামারা থানায় মামলা করেছে নিহতের ছেলে জাকারিয়া। মামলায় আরো ৩/৪ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রাখলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এ দিকে হত্যাকাণ্ডকে ঘিরে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। রক্তাক্ত জখম ছোট ভাই মিজানুর রহমানের অবস্থাও আশংকাজনক। তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্থানীয়রা বলছে, নাতনি তৃষাকে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করে ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ দেওয়াই কাল হলো ওই প্রধান শিক্ষকের।  জানা গেছে, সম্প্রতি শেষ হওয়া মোকারিমপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাড. বুলবুল আবু সাঈদ শামীম এবং বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম শ্যামলের মামা নিহত মজিবর রহমান। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রকাশ্যে বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারনা চালিয়েছিলেন তিনি এবং তার পরিবার। এ নিয়ে স্থানীয় রাজনীতিতে প্রতিপক্ষের সাথে বিরোধ চলেই আসছিল। এ দিকে নিহত মজিবর রহমানের নাতনি দামুকদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী তৃষা কু নজরে পড়ে ওই স্কুলেরই ৯ম শ্রেণির ছাত্র আরিফ হোসেনের। সে একই এলাকার আইয়ুব আলীর পুত্র। এ বিষয় নিয়ে গত ২৫ এপ্রিল সকালে মজিবর রহমান বাদী হয়ে ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বারাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করে। পরে নির্বাহী অফিসার ভেড়ামারা থানাকে অবহিত করলে পুলিশ বখাটে আরিফকে আটক করে নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে সোপর্দ করে। সেখানে নানা তদবির করে স্থানীয় নেতারা ওই বখাটেকে মুক্ত করে নিয়ে যায়। এর পরই রাত ৯টার দিকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ১০/১২ জনের একদল সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র দিয়ে মামলার বাদী এবং ফকিরাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মজিবর রহমান এবং তার ছোট ভাই মিজানুর রহমানকে উপর্যুপরি কোপায়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় বড় ভাই ফকিরাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মজিবর রহমান (৬৮)। মুমুর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ছোট ভাই মিজানুর রহমানকে। তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার অবস্থা আশংকাজনক। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ভেড়ামারা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ নূর হোসেন খন্দকার জানিয়েছেন, পূর্ব শুত্রুতার জের ধরে ২জনকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায় সন্ত্রাসীরা। এ সময় একজন নিহত হয়। পুলিশ প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটন করে দোষীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রেখেছে। এ ঘটনার পর নিহতের ছেলে জাকারিয়া বাদী হয়ে একটি মামলা করেছে। যার নং ১৭। তারিখ ঃ ২৬/০৪/২০১৬।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ