বুধবার ২৭ মে ২০২০
Online Edition

রাবি শিক্ষক হত্যায় ইমামসহ আটক ২

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর ড. এ এফ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দু’জনকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে শিক্ষক হত্যার প্রতিবাদে গতকাল রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করেন রাবি শিক্ষার্থীরা।

রেজাউল করিম সিদ্দিকীকে (৬১) কুপিয়ে হত্যার ঘটনার চার দিন পেরোলেও এখন পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের কোনো ক্লু খুঁজে পায়নি পুলিশ। ফলে অন্ধকারের মধ্যে তদন্ত করে যাচ্ছে পুলিশ। কী কারণে কে বা কারা তাকে খুন করলো তার কোনো কূল কিনারা পাচ্ছে না পুলিশ। হত্যার মোটিভও পরিষ্কার হচ্ছেনা। তবে তাদের কাছে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত এসেছে, তারা সেগুলো যাচাই বাছাই করে দেখছেন বলে একজন কর্মকর্তা জানান। পুলিশ আশা করছে দ্রুত জড়িতদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে। তবে এর মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার ভোরে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় অভিযান চালিয়ে রেজাউল করিম সিদ্দিকীর নিজ গ্রাম বাগমারার দরগামাড়িয়া মসজিদের ইমাম ও স্থানীয় এক মাদরাসার শিক্ষককে আটক করা হয়। আটকৃতরা হলেন, দরগামাড়িয়া জামে মসজিদের ইমাম রায়হান আলী (৩২) ও গোপালপুর মাদরাসার শিক্ষক মুনসুর রহমান (৪৮)। এদের মধ্যে রায়হানের বাড়ি উপজেলার তালঘরিয়া ও মুনসুরের বাড়ি খাজাপাড়া গ্রামে। পুলিশ জানায়, প্রফেসর রেজাউল করিম সিদ্দিকী তার নিজ গ্রামে একটি গানের স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন। কিন্তু তার গ্রামের মসজিদের ইমাম রায়হান আলী গান বাজনা পছন্দ করতেন না। বিরোধিতা করেন স্কুল প্রতিষ্ঠায়। এ কারণে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রায়হানকে আটক করা হয়েছে। আর সন্দেহভাজন হিসেবে শিক্ষকের পাশের গ্রামের খাজাপাড়ার মাদরাসা শিক্ষক মুনসুরকে আটক করা হয়েছে। এর আগে হাফিজুর ও খায়রুল নামে দু’জনকে আটক করা হয়। উল্লেখ্য, গত শনিবার সকালে রাজশাহী মহানগরীর শালবাগান এলাকায় নিজ বাড়ির সামনে দর্বৃত্তরা এ এফ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকীকে কুপিয়ে হত্যা করে।

এদিকে রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উত্তাল হয়ে উঠেছে ক্যাম্পাস। গতকাল মঙ্গলবার হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবিতে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন শিক্ষার্থীরা। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শিক্ষার্থীরা মহাসড়কের দুইপাশে এক কিলোমিটার জুড়ে অবস্থান নেন। এ সময় খালি গায়ে বিভিন্ন স্লোগান লিখে হত্যার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবি জানান অনেকে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ