ঢাকা, বুধবার 20 October 2021, ৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী
Online Edition

ঝিনাইদহের মানবপাচারকারী জাকির বিশ্বাস ধরা ছোঁয়ার বাইরে

ঝিনাইদহের মানবপাচারকারী জাকির বিশ্বাসের খপ্পরে পড়ে অর্ধশতাধিক যুবক ওই জেলা থেকে নিখোঁজ হলেও তিনি ধরা ছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন। নিখোঁজের স্বজনরা জাকিরের কাছে ওই সব তরুণদের বিষয় জানতে চাইলে তাদের উল্টো বিভিন্ন ধরণের হুমকি দেওয়া হয়। এমনকি জাকিরের হুমকিতে তারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে অভিযোগ করতেও ভয় পাচ্ছে।

ঝিনাইদহের মহেশপুর থানাধীন নওগাঁ গ্রামের লিয়াকত আলীর ছেলে পাভেল (২০) এবং যশোর সদর থানাধীন এবং নাসির উদ্দিনের ছেলে রুবেল (২২) কে মালেশিয়ায় পাচার করেছে মানব পাচারকারী জাকির বিশ্বাস।

চলতি বছরের এপ্রিলের ১৭ তারিখে পাভেল এবং রুবেল নামে ওই দুই তরুণকে মালেশিয়ায় পাঠিয়ে দেয়ার নাম করে বাড়ি থেকে নিয়ে যায় পাচারকারী জাকির বিশ্বাস। এরপর দীর্ঘ দুই মাস পেরিয়ে গেলেও পাভেল এবং রুবেলের সাথে পরিবারের আর কোনো যোগাযোগ হয়নি। এব্যাপারে নিখোঁজদের পরিবার জাকির বিশ্বাসের সাথে একাধিক বার যোগাযোগ করলেও সে বিভিন্ন তালবাহানা করতে থাকে। একপর্যায়ে জাকির বিশ্বাস নিখোঁজ পাভেলের পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী পাভেল এবং রুবেলের পরিবারের সাথে কথা বলে জানা যায়, পাভেল এবং রুবেলকে দু’মাস আগে মালেশিয়ায় পাঠানোর কথা বলে নিয়ে যায় জাকির বিশ্বাস। কিন্তু এরপর আর তার কোনো খোঁজ নেই। রুবেলের কথা জানতে চাইলে জাকির এনিয়ে তাদের বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করে দেয়। থানায় অভিযোগ করলে অবস্থা আরো খারাপ হবে বলে জাকির তাদের শাসায়। এমনকি মামলা করলে তাদের সন্তানদের হত্যা করা হবে বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দেয় জাকির। তাদের লাশও কোনোদিন খুঁজে পাবেন না বলে হুমকি প্রদান করা হয়। এছাড়া পরিবারের সদস্যদেরকেও প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়।

নিখোঁজ পাভেলের পরিবার ইতোমধ্যে নিরাপত্তাহীনতার কথা ভেবে চলতি মাসের ৯ তারিখে ঝিনাইদহের মহেশপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে (জিডি নং-৩৮৭)। 

জাকির বিশ্বাস ঝিনাদহের কালিগঞ্জ থানাধীন রাখালগাছী গ্রামের মৃত ছলেমান গাজীর পুত্র। এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায় জাকির বিশ্বাস এলাকায় মানবপাচারকারী হিসেবে পরিচিত। তার স্ত্রীও মানবপাচারকরীর সাথে জড়িত বলে জানা গেছে। সে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে বিদেশে পাঠানোর নাম করে টাকা পয়সা হাতিয়ে নিয়েছে। এলাকায় ভুক্তভোগী অনেকেই তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে।

ভুক্তভোগিদের অভিযোগ, জাকির বিশ্বাস বিদেশে পাঠানোর নাম করে এলাকার সাধারণ মানুষদের কাছ থেকে টাকা পয়সা হাতিয়ে নিয়েছে। তিনি জাল ভিসার মাধ্যমে অনেককে মালেশিয়ায় পাঠিয়েছে। ভুক্তভোগিরা সেখানে গিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করে। এমনকি অনেককে জেল খেটে দেশে ফিরতে হচ্ছে।

জানাগেছে, জাকির রাজধানীর একটি এজেন্সির হয়ে কাজ করে। গ্রামের সহজ সরল তরুণদের বিদেশে পাঠানোর কথা বলে পাচার করাই তার একমাত্র পেশা। বর্তমানে সে আত্মগোপনে রয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চেয়ে জাকিরের ব্যবহৃত মোবাইল ০১৯১২৩২৬৬১৭ নম্বরে কয়েকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এবিষয়ে মহেশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিদুল ইসলাম শাহীন জানান, বিষয়টি নিয়ে পুলিশ তদন্ত করছে। জাকির জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিলের (ইউএনএফপিএ) তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশ হতে প্রতি বছর প্রায় ১৫ হাজার মানুষ পাচার হয়। এছাড়া জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা বলেছে, চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে কয়েকহাজার বাংলাদেশি  পাচার হয়েছে যা আগের বছরের তুলনায় দ্বিগুণ। যদিও বর্তমান সরকার মানবপাচারকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে তবুও থেমে নেই মানবপাচার।-শীর্ষ নিউজ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ