ঢাকা, মঙ্গলবার 29 September 2020, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

নোয়াখালীতে বিএনপির মিছিলে পুলিশের গুলি, গাড়িতে আগুন, আটক-৮

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীতে বিএনপির মিছিলে পুলিশের বাঁধা, ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের পাল্টা পাল্টি মিছিল, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং অটোরিক্সায় আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৮ বিএনপি কর্মীকে আটক করেছে। পুলিশের গুলিতে দুই বিএনপি কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে দাবি করছে বিএনপি।

আজ সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত পৃথক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জেলা শহর মাইজদীর নাপিতেরপোল এলাকায় একটি ঝটিকা মিছিল বের করার চেষ্টা করে বিএনপির নেতা কর্মীরা। এসময় পুলিশ কয়েক রাউন্ড শর্টগানের গুলি করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।
এদিকে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শহরের মাইজদী জজ কোট এলাকায় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালী পৌর মেয়র হারুনের রশিদের আজাদের নেতৃতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে বিএনপির নেতা কর্মীরা। মিছিলটি টাউন হলের মোড়ে আসলে তাতে পুলিশ বাঁধা দেয়। এসময় বিএনপির নেতা কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলি করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় ফারুক ও জাফর আহম্মেদ নামের দুই বিএনপি কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে দাবী করছে বিএনপি। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৬বিএনপি কর্মীকে আটক করে, বিকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে জেলার গোদার মসজিদ এলকায় একটি বাসে আগুন দেয়।

অপরদিকে, ৫ জানুয়ারিকে কেন্দ্র করে নাশকতার আশংকা ভোর ৬টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সোনাইমুড়ী বাজারে প্রশাসনের ডাকা ১৪৪ধারাকে অমান্য করে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল মিছিল করতে চাইলে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে কয়েক রাউন্ড গুলি ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় পুলিশ ছাত্রদলের ২ কর্মীকে আটক করে।

দুপুর ১২টার দিকে জেলা শহরের পৌরকল্যান উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে একটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সাতে আগুন দেয় দূর্বৃত্তরা।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ আজাদ জানান, গণতন্ত্র হত্যা দিবসের কর্মসূচী পালনের জন্য শহরের পৌরবাজারে সমাবেশ করার জন্য পুলিশের কাছ থেকে তাঁরা মৌখিক অনুমতি নিয়েছিলেন। কিন্তু কোন কারণ ছাড়াই পুলিশ তাঁদের সমাবেশ করতে দেননি। এছাড়া বিনা উস্কানিতে বিএনপির মিছিলে গুলি করে এবং ৫-৬ কর্মীকে আহত করে।

এদিকে, দুপুরে শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ পিন্টু ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীনের নেতৃত্বে সরকারের এক বছর পূর্তি উপলক্ষে একটি মিছিল ও জেলা আওয়ামীলীগের অফিসের সামনে পুলিশে পাহারায় জেলা আওয়ামীলীগের এক বছর পূর্তি সমাবেশ বিকাল ৫টা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. ইলিয়াছ শরীফ জানান, শহরে মিছিল বের করে বিএনপির নেতাকর্মীরা নাশকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে নাপিতেরপোল এলাকায় ৪ রাউন্ড, জজ কোট এাকায় ৬ রাউন্ড, সোনাইমুড়ীতে ১৪৪ধারা ভঙ্গ করে ছাত্রদল ও ছাত্রলীগ মুখো-মুখি অবস্থান করলে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে ৩ রাউন্ড ফাঁকা শর্টগানের গুলি করা হয়।
এছাড়াও সকল ধরনের সহিংসতা রোধে জেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশ মোতায়েন ও বিভিন্ন সড়কে পুলিশের পাশাপাশি ৩ প্লাটুন বিজিবি টহলে রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ