ঢাকা, সোমবার 12 April 2021, ২৯ চৈত্র ১৪২৭, ২৮ শাবান ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

এটিএম আজহারের বিরুদ্ধে মৃত্যুদন্ডের রায় দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল

একাত্তরে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলামের বিরুদ্ধে মৃত্যুদন্ডের রায় ঘোষনা করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন ট্রাইব্যুনাল-১ আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে বারোটায় এ রায় ঘোষনা করে।

স্বাধীনতাযুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের ছয়টি অভিযোগ আনা হয়েছিলো তার বিরুদ্ধে।
এর মধ্যে ১ নম্বরটি ছাড়া বাকি ৫টি অভিযোগ প্রমানিত হয় বলে জানায় ট্রাইব্যুনাল।

২০১২ সালের ১৫ এপ্রিল এটিএম আজহারের যুদ্ধাপরাধের তদন্ত শুরু হয়। ওই বছর ২২ অাগস্ট রাজধানীর মগবাজারের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এরপর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে গত ১৮ সেপ্টেম্বর মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখা হয়।

এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (আইও) এম ইদ্রিস আলীসহ রাষ্ট্রপক্ষের মোট ১৯ জন সাক্ষ্য দেন। তবে সপ্তম সাক্ষী আমিনুল ইসলামকে বৈরি ঘোষণা করা হয়।

এছাড়া একজন ‘ভিকটিম’ ১৪ নম্বর সাক্ষী হিসাবে ক্যামেরা ট্রায়ালে জবানবন্দি দেন।

চলতি বছর ৩ ও ৪ অগাস্ট আজহারের পক্ষে একমাত্র সাফাই সাক্ষী হিসেবে জবানবন্দি দেন আনোয়ারুল হক।  

এর আগে মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১১টায় ১৫৮ পৃষ্ঠার রায় পাঠ শুরু হয়।

সকাল ৮.৫৫ মিনিটে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের একটি মাইক্রোবাসে করে তাকে ট্রাইব্যুনালে আনা হয়।

গতকাল সোমবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ মামলাটি রায়ের জন্য তারিখ ধার্য করেন। ট্রাইব্যুনাল অন্য সদস্য হলেন- বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি আনোয়ারুল হক।



অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ