ঢাকা, বুধবার 12 August 2020, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

আ.লীগ জনগণের বোঝা, বাংলাদেশ খেকো: খালেদা জিয়া

বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের জন্য বোঝা ও ‘বাংলাদেশ খেকো’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন ও ২০ দলীয় জোটের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। তিনি বলেছেন, এদের সরাতে হবে নইলে তারা দেশকে ফোকলা করে ছাড়বে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও এরশাদের দিকে ইঙ্গিত করে বিএনপি চেয়ারপারসন ও জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, স্বঘোষিত বেইমান আর বিশ্ব বেহায়া আজ একসঙ্গে হয়েছে ।

খালেদা জিয়া বলেছেন, “আওয়ামী লীগ জনগণের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই বোঝাকে সরাতে হবে। এর জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। খালেদা জিয়া বলেন, ডিসেম্বর মাস বিজয়ের মাস, আনন্দের মাস। এরপরও মানুষের মুখে হাসি নেই।

আজ শনিবার বিকালে নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুর বালুর মাঠে ২০ দলীয় জোট আয়োজিত জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগ সকল প্রতিষ্ঠানকে দলীয় করণের মাধ্যমে ধ্বংস করে দিয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, মেধাবী কর্মকর্তাদের হয় ওএসডি করে রেখেছে না হয় চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। গত কয়েকদিন আগেও একজনকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে চাকরী থেকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে।

সাত খুনের ঘটনায় র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল জিয়াউল আহসানকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, সাত খুনের মূল হোতা এই জিয়া। তাকে গ্রেপ্তার করা হলে দেশের সব গুম-খুনের তথ্য পাওয়া যাবে।

তিনি প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা জয় সম্পর্কে বলেন, দেশের তরুনরা চাকরি পায় না আর উনি কি এমন উপদেষ্টা হয়ে গেলেন যে মাসে কোটি টাকা বেতন নেন।

আলেম-ওলামাদের প্রসঙ্গ টেনে খালেদা জিয়া বলেন, কথায় কথায় আলেমদের সন্ত্রাসী-জঙ্গী বলা হয়, আসল জঙ্গী-সন্ত্রাসী তো হলো আওয়ামীলীগ।

তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষ শক্তি নয় বরং বিএনপি হলো মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি।

সুন্দরবনে তেলবাহী ট্যাংকার ডুবির ঘটনা পরিকল্পিত বলে মন্তব্য করেন খালেদা জিয়া ।

এর আগে, খালেদা জিয়া দুপুর সোয়া ২টায় তার গুলশানের বাসভবন থেকে রওয়ানা দেন। তিনি গুলশান, শেরাটন মোড়, পল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়, হাটখোলা, যাত্রাবাড়ী ফ্লাইওভার হয়ে সোনারগাঁও কাঁচপুর বালুরমাঠের জনসভায় যোগ দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ