ঢাকা, বুধবার 12 August 2020, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ জিলহজ্ব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

নিজ বাড়িতে রহিম উল্যাহ এমপি অবরুদ্ধ

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের (একাংশ) নেতাকর্মীদের হুমকির ভয়ে নিজ বাড়িতে অবরুদ্ধ হয়ে আছেন ফেনী-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা হাজি রহিম উল্যাহ।

সোনাগাজীর আহম্মদপুর ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে অবরুদ্ধ রহিম উল্যাহ জানান, গত মঙ্গলবার বিকাল চারটার দিকে র‌্যাব ও পুলিশের কড়া পাহারায় তিনি বাড়িতে আসেন। এরপর থেকে প্রাণনাশের অব্যাহত হুমকির কারণে বাড়িতেই অবস্থান করছেন।

রহিম উল্যাহ অভিযোগ করেন, “ফেনী ও সোনাগাজী আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের সিন্ডিকেট নেতারা আমার বাড়িঘর জ্বালিয়ে ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামের মতো আমাকে হত্যার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। আমার বাড়িতে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের আসতে বাধা দেয়া হচ্ছে।”

৫ জানুয়ারি নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত রহিম উল্যাহ দাবি করেন, সোনাগজীর উন্নয়নে তার দৃঢ় ভূমিকায় ঈর্ষান্বিত হয়ে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের কিছু নেতা নানা ষড়যন্ত্র করছেন।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার বিকালে ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরার পথে মহীপাল, লালপোল ও সোনাগাজী পৌর শহরের জিরো পয়েন্টে রহিম উল্লাহর গাড়িবহরে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আজিজুল হক হিরণের নেতৃত্বে যুবলীগের নেতাকর্মীরা হামলা করেন। এ সময় একটি মাইক্রোবাস ও তিনটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিপেটা করলে যুবলীগের নেতা হিরণসহ অন্তত ১০ জন আহত হন।

এর আগে প্রবাসী এ আওয়ামী লীগ নেতা রহিম উল্যাহকে ফেনী সার্কিট হাউসে যোগাযোগমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ওবায়দুল কাদেরের উপস্থিতিতে মারধর করেন যুবলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় দলের শীর্ষ নেতারাও বিব্রত হন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ