বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

অপশাসনের কবল থেকে জাতিকে মুক্ত করতে হবে -শিবির সেক্রেটারি জেনারেল

গতকাল বুধবার ইসলামী ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী পশ্চিম আয়োজিত দায়িত্বশীল সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেল আতিকুর রহমান -সংগ্রাম

ইসলামী ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি জেনারেল আতিকুর রহমান বলেন, কোন সরকার নয় বরং দেশে চলছে অপশাসন। এই অপশাসনে রাষ্ট্রের প্রতিটি স্তম্ভ আজ নড়বড়ে হয়ে পড়েছে। তাদের কবল থেকে জাতিকে মুক্ত করতে ছাত্রশিবিরের দায়িত্বশীলদের ঐতিহাসিক ভূমিকা পালন করতে হবে।
গতকাল বুধবার ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী পশ্চিমের দায়িত্বশীল সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সকাল ১০টায় রাজধানীর এক মিলনায়তনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। শাখা সভাপতি তামিম হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় শিক্ষা সম্পাদক মোবারক হোসেন। 
 সেক্রেটারী জেনারেল বলেন, দেশ এখন সর্বগ্রাসী হায়েনার কবলে পড়েছে। অবৈধ সরকারের দানবীয় তা-ব মুক্তিকামী মানুষের শান্তি কেড়ে নিয়েছে। লুট করা ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে রাষ্ট্রের মূল ভিত্তিগুলোকে তছনছ করে চলেছে। রাষ্ট্রের সম্পদ লুটপাট করে দেশের অর্থনীতিকে পঙ্গু করে দিয়েছে। অস্ত্রধারী জঙ্গি ছাত্রলীগকে লেলিয়ে দিয়ে খুন, হামলা, চাঁদাবাজী, অস্ত্রবাজী করিয়ে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছে। যুদ্ধাপরাধের বিচারের নামে প্রহসন, আলেম ওলামাদের উপর গণহত্যা, ইসলাম বিরোধী আইন করে দেশ থেকে ইসলামকে নির্মূল করার ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। জনগণের ন্যায় বিচার পাওয়ার শেষ আশ্রয়স্থল আইন আদালতকে দলীয় প্রতিষ্ঠানে পরিণত করা হয়েছে। সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় বিদেশী নোংরা সংস্কৃতি ও নর্তকীদের আমদানি করে যুবসমাজ এবং দেশীয় সংস্কৃতিকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছে। আর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে পরিণত করেছে দলীয় ঘাতক বাহিনীতে।
তিনি বলেন, দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে প্রয়োজন একটি ঐতিহাসিক দুর্বার গণআন্দোলন যা দেশের জনগণকে এই দানবের কবল থেকে রক্ষা করবে। দেশ ও ইসলাম রক্ষা করতে গণবিস্ফোরণের বিকল্প নেই। দেশের মানুষও একটি ঐতিহাসিক ক্ষণের অপেক্ষা করছে। মনে রাখতে হবে, দেশ ও ইসলাম রক্ষায় ছাত্রশিবির জাতির কাছে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আর প্রতিরোধ আন্দোলন ছাড়া জাতির ঘাড়ে চেপে বসা এই সর্বগ্রাসী দানবের অপসারণ সম্ভব নয়। তাই জাতির মুক্তির জন্য ছাত্রশিবিরের দায়িত্বশীলদের সর্বোচ্চ ত্যাগের মানসিকতা ও প্রস্তুতি নিয়ে ঐতিহাসিক ভূমিকা পালন করতে হবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ