বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

লতিফের মৃত্যুদন্ডের আইন পাসের জন্য প্রয়োজনে লাগাতার আন্দোলন -আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সিনিয়র নায়েবে আমীর আল্লামা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী বলেছেন, মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকীর মৃত্যুদন্ডের আইন পাস করার জন্য প্রয়োজনে লাগাতার আন্দোলন শুরু হবে। সরকার নাস্তিকদের নিয়ে নতুন খেলা শুরু করেছে। আল্লাহর জমিনে তাঁর দেয়া নেয়ামত ভোগ করে এদেশে আল্লাহদ্রোহীদের সাথে নিয়ে কোনো ষড়যন্ত্র করা হলে তার দাঁতভাঙা জবাব দেয়া হবে।
তিনি বলেন, এদেশের মাটি ও মানুষ যুগ যুগ ধরে হক্কানি ওলামা-পীর-মাশায়েখদের সোহবত পেয়ে ঈমানের জাগরণে পোক্ত হয়েছে। তাই এখানে কোনো ধরনের আল্লাহবিরোধী ও ইসলামবিরোধী কার্যক্রম সহ্য করা হবে না। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে লতিফের মতো ইসলাম বিদ্বেষী নাস্তিক মুরতাদেরা বারবার মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.)-এর নামে অত্যন্ত বিশ্রী ভাষায় কটূক্তি করে দেশের তৌহিদি জনতার হৃদয়ে কুঠারাঘাত করে যাচ্ছে। ধর্ম অবমাননার বিরুদ্ধে দেশে কঠোর আইন না থাকায় ঐসব ঘৃণিত মুরতাদেরা আল্লাহ ও রাসূল (স.)-এর শানে বেয়াদবি করার সাহস পাচ্ছে। আল্লাহর জমিনে এই ধরনের জঘন্য নাস্তিক-মুরতাদের বিচরণ করার সুযোগ দেয়া যায় না। 
তিনি বলেন, হজ্ব হচ্ছে আল্লাহ প্রদত্ত প্রধান ফরয বিধানগুলোর একটি। সেই ফরয বিধানের বিরোধিতা করে এবং রাসূল (স.)-এর বংশকে ‘ডাকাত’ বলে অপবাদ দিয়ে প্রকাশ্যে এরকম ধর্মদ্রোহী বক্তব্য দিয়ে মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকী আল্লাহর অভিশপ্ত বান্দায় পরিণত হয়েছে। বিশ্বের সকল ধর্মপ্রাণ মানুষের ধর্মানুভূতিতে এহেন আঘাত দেয়ার একমাত্র উপযুক্ত শাস্তিই হলো মৃত্যুদন্ড। সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান করেই তবে লতিফের বিচার চায় বাংলার তৌহিদী জনতা। অন্যথায় রাজপথে তৌহিদী জনতার গণজোয়ার শুরু হলে কোনো অপশক্তিই সেটা ঠেকাতে পারবে না।   
আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী বলেন, বর্তমান সময়ে তাবলীগ জামাত বিশ্বব্যাপী ইসলামের দাওয়াতী সিলসিলা জারি রাখার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করছে। সরাসরি তাবলীগ জামাতের বিরুদ্ধে কথা বলে লতিফ সিদ্দিকী ইসলামের দাওয়াতী কার্যক্রমকে হেয় করেছে। মুসলিমরা আল্লাহকে ভালোবেসে তাঁর ফরয বিধান হজ্ব পালন করার জন্য প্রতিবছর পয়সা খরচ করে মক্কা-মদীনা গমন করেন। সেই খরচপাতিকে কটাক্ষ করে লতিফ সিদ্দিকী মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিকে বিদ্রুপ করেছে। তাই তাকে মৃত্যুদন্ডের আইনে বিচার করে ইসলামবিদ্বেষী নাস্তিক-মুরতাদদের আস্ফালন বন্ধ করতে হবে।    
তিনি গতকাল বুধবার বাদ যোহর বাঁশখালীর দক্ষিণ বরুমছড়া মোনায়েম শাহ উচ্চবিদ্যালয় ময়দানে অনুষ্ঠিত তাফসীরুল কুরআন ও শানে রেসালাত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন। হেফাজতে ইসলাম রিয়াদ শাখার সহ-সভাপতি ও খতিবে আজম মাওলানা সিদ্দিক আহমদ (রহ.) স্মৃতি পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা বোরহান উদ্দিন আলরাজির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত তাফসীর মাহফিলে  বক্তব্য রাখেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, সাহিত্য সম্পাদক মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী, মাওলানা আব্দুল হক হক্কানী, মাওলানা আবদুস সালাম, মাওলানা মোহাম্মদ হোসাইন, মাওলানা নূর আহমদ, মাওলানা রফিকুল ইসলাম, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, মাওলানা আবদুল মালেক, মাওলানা মোহাম্মদ ইউনূস প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ