মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

দুদকের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে তারেক রহমানের শাশুড়ীর রিট

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের শাশুড়ী সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানু তাকে নোটিশ না দিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলা করার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট দায়ের করেছেন। গতকাল রোববার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় যুক্তরাজ্যে চিকিৎসাধীন স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত লেখিকা সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানুর পক্ষে তার আইনজীবীরা রিটটি দায়ের করেন।

এরপর বিচারপতি মির্জা হোসাইন হায়দার ও বিচারপতি মোহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চে রিট আবেদনটি নিয়ে যাওয়া হলে আজ সোমবার সকালে ওই রিটের শুনানির দিন ধার্য করেন।

আদালতে রিট আবেদনটি উত্থাপন করেন সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল। দুদকের পক্ষে ছিলেন এডভোকেট খুরশীদ আলম খান।

সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানু সাবেক নৌ বাহিনী প্রধান রিয়ার এডমিরাল মরহুম মাহবুব আলী খানের স্ত্রী।

দুদকের আইনজীবী এডভোকেট খুরশীদ আলম খান জানান,সম্পদ বিবরণীর নোটিশ জারির পরও নির্দিষ্ট সময়ে সম্পদের হিসাব দাখিল না করার অভিযোগে গত ৩০ জানুয়ারি দুদক ইকবাল মান্দ বানুর বিরুদ্ধে নন-সাবমিশন মামলা দায়ের করে।

এর আগে ২০১২ সালের ২৫ জানুয়ারি ইকবাল মান্দ বানুর বরাবর সম্পদ বিবরণী দাখিলের নোটিশ জারি করে দুদক। ওই নোটিশ ইকবাল মান্দ বানুর পক্ষে তার বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক জাকির হোসেন গ্রহণ করেন।

এরপর ওই নোটিশের বিরুদ্ধে ইকবাল মান্দ বানু হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করেন। রিটের প্রেক্ষিতে ২০১২ সালের ৩০ জানুয়ারি হাইকোর্ট নোটিশের কার্যকরিতা স্থগিত করেন এবং নোটিশ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবেনা তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। ওই বছরের ৩ মে কমিশনের আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্টের রায় স্থগিত করেন আপিল বিভাগের  চেম্বার জজ আদালত। একইসঙ্গে সিভিল পিটিশন ফর লিভ টু আপিল দায়ের করে দুদক। এরপর ২০১৩ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর চেম্বার জজ আদালত রায় বহাল রেখে হাইকোর্টকে রুল নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ।

দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান জানান, আপিল বিভাগের স্থগিতাদেশ রিট নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বহাল থাকায় বর্তমানে ওই রিট সংশ্লিষ্ট দুদকের কার্যক্রম পরিচালনায় আইনগত কোন বাধা নেই। যে কারণে দুদক অভিযুক্তের বিরুদ্ধে নন-সাবমিশন মামলা দায়ের করেছে।

দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারাসহ জরুরি ক্ষমতা বিধিমালা ১৫ (ঘ) ধারায় মামলা দুদকের উপ পরিচালক আর কে মজুমদার ওই মামলা দায়ের করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ