মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

কবিতা উৎসবে কবিদের হাতাহাতি

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি সংলগ্ন হাকিম চত্বরে অনুষ্ঠিত জাতীয় কবিতা উৎসবে কবিতা পড়তে না দেয়ায় কবিদের মধ্যে হাতাহাতি ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রোববার বিকালে অনুষ্ঠান চলাকালীন সময়ে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঢাকার মিরপুর থেকে নুরে আলম নামে এক ব্যক্তি কবিতা পাঠ করতে এসেছেন কবিতা উৎসবে। তার কবিতার নাম প্রজন্মের ডাক। তিনি কবিতা পাঠ করার জন্য ২০০ টাকা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করেছেন। কিন্তু সেখানে কবিতা বাছাই কমিটি কবিতায় খারাপ উক্তি আছে বলে কবিতাটির বেশ কয়েকটি লাইন কলম দিয়ে কেটে দেন। এতে ওই কবি রেগে যান।

এক পর্যায়ে তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে কবিতা মঞ্চের পাশে চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করে। এতে সেখানে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। পরে কবিতা উৎসব কমিটি ওই ব্যক্তিকে জোর করে মঞ্চ থেকে নিচে বসার জায়গায় নিয়ে যান। এ সময় ক্ষুব্ধ কবি ও উৎসব কমিটির কবিদের মধ্যে হাতাহাতি হয়।

জাতীয় কবিতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আসলাম সানী বলেন, ওই ব্যক্তির কবিতার মধ্যে অশ্লীল ভাষার সংযোজন ছিল। সেগুলো কেটে দেয়ায় তিনি চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করেন। এতে কিছুটা বিশৃঙ্খলা হয়।

তবে কবিতায় অশ্লীল ভাষার কথা অস্বীকার করে নুরে আলম বলেন, আমি পাখি নিয়ে কবিতা লিখেছি। কবিতার মধ্যে কোন অশ্লীল ভাষা নেই। আমার কবিতাটি বড় হওয়ায় তারা ইচ্ছে করে লাইনগুলো কেটে দিয়েছে।

দুদিনব্যাপী কবিতা উৎসব-২০১৪ গত শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের হাকিম চত্বরে শুরু হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ