মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

নৌকায় আসা শরণার্থীদের আশ্রয় দেবে না অস্ট্রেলিয়া

সংগ্রাম ডেস্ক : নৌকা যোগে আসা আর কোনো শরণার্থীকে আশ্রয় দেবে না অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী কেভিন রাড গত শুক্রবার এ ঘোষণা দিয়ে বলেন, “এদের আর অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসের সুযোগ দেয়া হবে না।” পরিবর্তে এখন থেকে নৌকায় করে আসা এ ধরনের আশ্রয়প্রার্থীদের পাপুয়া নিউ গিনিতে পাঠিয়ে দেয়া হবে। বিবিসি/আল জাজিরা । অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পাপুয়া নিউ গিনির এই মর্মে একটি চুক্তি হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ায় আশ্রয়প্রার্থী অনেক শরণার্থী ঝুঁকিপূর্ণ সমুদ্রপথে ক্রিসমাস দ্বীপ পর্যন্ত পৌঁছানোর চেষ্টা করে। তাদের ধারণা একবার দ্বীপটিতে পৌঁছতে পারলেই অস্ট্রেলিয়ার মূল ভূখ-ে পৌঁছানো যাবে। দ্বীপটি অস্ট্রেলিয়ার মূল ভূখ- থেকে প্রায় ২ হাজার ৫৭৫ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত। ইন্দোনেশিয়ার কাছের এই দ্বীপটি অস্ট্রেলিয়ায় মানব চোরাচালানের জন্য প্রধান পথ ।

প্রধানমন্ত্রী কেভিন রাড বলেন, “অস্ট্রেলিয়ার জন্য একটি শক্তিশালী সীমান্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করা তার দায়িত্ব। তবে একই সঙ্গে আন্তর্জাতিক শরণার্থী সনদের বাধ্যবাধকতা তারা মেনে চলতে চান।” পাপুয়া নিউ গিনির প্রধানমন্ত্রী পিটার ও নিলের সঙ্গে যৌথভাবে তিনি গত শুক্রবার এই নতুন অভিবাসন নীতি ঘোষণা করেন।  সমুদ্রপথে ঝুঁকিপূর্ণ নৌকা ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করার লক্ষেই কঠোর এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে । বিশেষ করে তথাকথিত “অর্থনৈতিক অভিবাসীদের” ঠেকাতে যারা নিগ্রহের কারণে পালিয়ে আসছে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ