শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

কনফেডারেশন কাপে নাইজেরিয়ার উড়ন্ত সূচনা

স্পোর্টস ডেস্ক : দুর্বল তাহিতিকে ৬-১ গোলে বিধ্বস্ত করে কনফেডারেশন কাপে উড়ন্ত সূচনা করেছে নাইজেরিয়া। দীর্ঘ ভ্রমণ ক্লান্তি কাটিয়ে বেলো হরাইজোনে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বড় এই জয় আফ্রিকান চ্যাম্পিয়নদের আত্মবিশ্বাস আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। খেলোয়াড়দের বোনাস নিয়ে বিরোধ কাটিয়ে মাত্র ৩৬ ঘণ্টা আগে ব্রাজিলে পা রেখেছে নাইজেরিয়া। তবে শেষ ম্যাচে গ্রুপ বি’র ফেবারিট বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন্স স্পেনের বিপক্ষে তাদের যে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হবে তাতে কোন সন্দেহ নেই। বিশ্বের ১৩৮তম র‌্যাঙ্কধারী তাহিতির বিপক্ষে গত সোমবার নাইজেরিয়া যেন একটু বেশি নির্দয় হয়ে উঠেছিল। তবে কনফেডারেশন কাপে প্রথমবারের মত খেলার যোগ্যতা অর্জন করা তাহিতির জন্য টুর্নামেন্টের অভিজ্ঞতাও একটি বড় বিষয়। ৫৪ মিনিটে জোনাথন তাহেয়ুর গোলে প্রথম কোন হাই প্রোফাইল আন্তর্জাতিক ইভেন্টে যখন তাহিতি গোলের স্বাদ পায় সেই মুহূর্তটা তাদের জন্য যেন ছিল অবিশ্বাস্য। তবে প্রথমার্ধে তিন গোলে এগিয়ে থাকা নাইজেরিয়াকে দ্বিতীয়ার্ধের ৬৮ মিনিটে আত্মঘাতী গোল উপহার দেয় এই তাহেয়ু। প্রথমার্ধের ৫ মিনিটে উয়া এলডারসন এচিজিলের গোলে এগিয়ে যাওয়া আফ্রিকান সুপার ঈগলদের পক্ষে ১০, ২৬ ও ৭৬ মিনিটে তিনটি গোল করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ২২ বছর বয়সী মিডফিল্ডার ওডুয়ামাডি। এরপর ৮৮ মিনিটে এলডারসনের দ্বিতীয় গোল বৃহস্পতিবার উরুগুয়ের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে স্টিফেন কেশির শিষ্যদের কিছুটা হলেও এগিয়ে রাখলো। উরুগুয়ে তাদের প্রথম ম্যাচে স্পেনের কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হয়ে গ্রুপের তৃতীয় স্থানে রয়েছে। ব্রাজিলের নব নির্মিত এস্টাডিও মিনেইরাও স্টেডিয়ামে গতকালকের ম্যাচে মাত্র ২০ হাজার দর্শকের উপস্থিতি ছিল যাদের বেশিরভাগেরই সমর্থন ছিল ছোট দল তাহিরি পক্ষে। ডিফেন্ডার ভিনসেন্ট সাইমনের শটে ম্যাচের প্রথম আক্রমণটি চালায় তাহিতিই। কিন্তু এর পর মুহূর্তেই আন্ডার ডগদের জন্য দুর্ভাগ্যের সূচনা করেন এলডারসন। রেফারি জোয়েল আগুইলারের শরীরে লেগে ফিরে আসা বলে এলডারসন জোড়ালো শট করলে তা তাহেয়ু এবং অধিনায়ক নিকোলাস ভালারের সামনে দিয়ে তাহিতি গোলরক্ষক জেভিয়ার সামিনের পাশ কাটিয়ে জালে প্রবেশ করলে পাঁচ মিনিটেই এগিয়ে যায় নাইজেরিয়া। এরপর দ্রুত ১০ ও ২৬ মিনিটে ওডুয়ামাডি দুই গোল করলে ম্যাচের ভাগ্য অনেকটাই নির্ধারিত হয়ে যায়। তবে আহমেদ মুসা, এন্থোনি উজা এবং সানডে এমবা সুযোগ নষ্ট না করলে ব্যবধান হয়ত আরো বাড়তে পারতো। দ্বিতীয়ার্ধে মুসা আবারো ১২ গজ দূর থেকে গোলের সুযোগ নষ্ট করেন। তবে তার আগে তাহিতির একমাত্র পেশাদার স্ট্রাইকার মারামা ভাহিরুয়ার একটি শট অল্পের জন্য নাইজেরিয়ার গোল পোস্টের ঠিকানা খুঁজে পায়নি। এছাড়া রিকি আইতামাইয়ের ক্রস থেকে স্টিভ চোং হুয়ের হেড ক্রসবারের ওপর দিয়ে বাইরে চলে না গেলে তাহিতি হয়ত ব্যবধান কিছুটা হলেও কমাতে পারতো।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ