মঙ্গলবার ২৯ নবেম্বর ২০২২
Online Edition

মুমিনুলকে বিশ্রাম দেয়া হয়েছে -নির্বাচক রাজ্জাক

স্পোর্টস রিপোর্টার: ধারবাহিক ব্যর্থতা কাটাতে মুমিনুল হককে ‘এ’ দলের সঙ্গে উইন্ডিজ সফর করার কথা বলেছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন। তবে তাকে ছাড়াই শেষ পর্যন্ত দেয়া হয়েছে ‘এ’ দল। মুমিনুলকে কেন রাখা হয়নি, সেটার ব্যখ্যা দিয়েছেন জাতীয় নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক। গতকাল ‘এ’ দলের আনুষ্ঠানিক সাংবাদিক সম্মেলনে সাবেক এই স্পিন তারকা জানিয়েছেন, মুমিনুলকে বিবেচনায় নেওয়ার প্রশ্নই আসে না, তাকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। রাজ্জাক বলেন, ‘মুমিনুল আসলে অল্প সময়ের জন্য অফফর্মে আছে। ওকে এখানে বিবেচনায় আনা না আনার প্রশ্নই আসে না। আমি মনে করি ওকে উপযুক্ত বিশ্রাম দেয়া হয়েছে। টেস্ট ক্রিকেট এমনিতেই কঠিন, মুমিনুলের বাজে সময় যাচ্ছিল আবার সে অধিনায়কও। তো মাঝে মাঝে মানুষের ছোট বিরতি দরকার হয়।’ বিসিবি প্রেসিডেন্ট উইন্ডিজে পাঠানোর ইঙ্গিত দিলেও নির্বাচকরা মনে করেছেন মুমিনুলের রানে ফেরার জন্য প্রয়োজন পূর্ণ বিশ্রাম। তাই ‘এ’ দলে মুমিনুলের জায়গা হয়নি এমন প্রসঙ্গই টানতে চান না রাজ্জাক। তিনি বলেন, ‘আমি শুনেছি যে মুমিনুলকে কি ‘এ’ দলেও জায়গা দেয়া হবে না! না এটা এমন না। খুব চাপে ছিল সে, মুমিনুলের এমন কোনো বয়স হয়ে যায়নি যে আর ফিরতে পারবে না। এমন না। এটা একদমই বিশ্রাম।’ ২০১৩ সালে মুমিনুলের অভিষেকের পর বাংলাদেশ ৬০ টেস্ট খেলেছে। যেখানে তিনি খেলেছেন ৫৪ টেস্ট। পরিসংখ্যান স্পষ্ট বলে দেয়, বাঁহাতি এ ব্যাটসম্যান দলের জন্য কতটা বড় ভূমিকা রেখেছিলেন। লাল বলের ক্রিকেটে মুমিনুলের রান ৩৫২৯। ব্যাটিং গড় ৩৭.৫৪। সেঞ্চুরি সবচেয়ে বেশি ১১টি। তবে চূড়ান্ত অফফর্মে থাকা মুমিনুল শেষ ১০ ইনিংসের নয়টিতেই দুই অঙ্কের ঘরে যেতে পারেননি। মাউন্ট মঙ্গানুইতে ৮৮ রানের ইনিংসের পর ১২ ইনিংসে তার মোট রান ৭৮! এ সময়ে চার ইনিংসেই রানের খাতা খুলতে পারেননি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর শেষে বিসিবি প্রেসিডেন্ট বলেছিলেন, ‘অবশ্যই মুমিনুলকে সেখানে (ওয়েস্ট ইন্ডিজে ‘এ’ দলের সফর) পাঠানোর চিন্তা তো থাকবেই। এগুলো তো আমার পক্ষে বলা কঠিন। আমি তো নির্বাচক, ম্যানেজমেন্ট, কোচিং স্টাফদের সঙ্গে কথা বলিনি। স্বাভাবিকভাবেই মনে হচ্ছে, এটা ওর জন্য দারুণ সুযোগ হতে পারে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ