রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২
Online Edition

খন্দকার আবদুল মজিদের ইন্তিকালে জামায়াত আমীরের শোক

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার প্রবীণ সদস্য (রুকন) যদুবয়রা ইউনিয়নের জোতমোড়া গ্রামের বাসিন্দা খন্দকার আবদুল মজিদ বার্ধক্যজনিত কারণে গতকাল সোমবার বেলা ২টায় ৭৫ বছর বয়সে ইন্তিকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিঊন)। তিনি স্ত্রী, ৪ পুত্র ও ৪ কন্যাসহ বহু আত্মীয়-স্বজন রেখে গিয়েছেন। গতকাল বাদ এশা নিজ বাড়িতে জানাযা শেষে তাঁকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
শোকবাণী : খন্দকার আবদুল মজিদের ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করে জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডা. শফিকুর রহমান শোকবাণী দিয়েছেন।  
শোকবাণীতে তিনি বলেন, খন্দকার আবদুল মজিদের ইন্তিকালে আমরা ইসলামী আন্দোলনের একজন নিবেদিত প্রাণ দাঈকে হারালাম। ইসলামী আন্দোলনের প্রচার ও প্রসারে তাঁর অনেক অবদান রয়েছে এবং তিনি ন্যায় ও ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে গিয়েছেন। আমি তাঁর ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করছি।
শোকবাণীতে তিনি আরো বলেন, ইতোমধ্যে তিনি দুনিয়ার সফর শেষ করেছেন। শুরু হয়েছে তাঁর অনন্তকালের সফর। এই সফরে আল্লাহ্ রাব্বুল আলামীন তাঁর একান্ত সাহায্যকারী হোন। কবর থেকে শুরু করে পরবর্তী প্রত্যেকটি মঞ্জিলকে তাঁর জন্য সহজ, আরামদায়ক ও কল্যাণময় করে দিন। আল্লাহ তায়ালা তাঁর জীবনের সকল নেক আমল কবুল করে তাঁকে জান্নাতে উচ্চ মাকাম দান করুন এবং তাঁর শোকাহত পরিবার-পরিজনদেরকে এ শোক সহ্য করার তাওফিক দান করুন। আমীন।
সাইদুল ইসলামের ইন্তিকাল : জামায়াতে ইসলামী পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলার সদস্য (রুকন) দাশুড়িয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা মোঃ সাইদুল ইসলাম গ্যাস্ট্রিক রোগে আক্রান্ত হয়ে ২৫ জুলাই বেলা ২টায় ৫৪ বছর বয়সে ইন্তিকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিঊন)। তিনি স্ত্রী, ১ পুত্র ও ১ কন্যাসহ বহু আত্মীয়-স্বজন রেখে গিয়েছেন। ২৫ জুলাই রাত ১০টায় এসএম স্কুল মাঠে জানাযা শেষে তাঁকে সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
শোকবাণী : মোঃ সাইদুল ইসলামের ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করে জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডা. শফিকুর রহমান শোকবাণী দিয়েছেন।  
শোকবাণীতে তিনি বলেন, মোঃ সাইদুল ইসলামের ইন্তিকালে আমরা ইসলামী আন্দোলনের একজন নিবেদিত প্রাণ দাঈকে হারালাম। দেশে ইসলাম প্রতিষ্ঠার তামান্না নিয়ে তিনি আজীবন ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক জীবন-যাপনের চেষ্টা করেছেন এবং দ্বীন প্রচার ও প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে গিয়েছেন। আমি তাঁর ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করছি।
শোকবাণীতে তিনি আরো বলেন, ইতোমধ্যে তিনি দুনিয়ার সফর শেষ করেছেন। শুরু হয়েছে তাঁর অনন্তকালের সফর। এই সফরে আল্লাহ্ রাব্বুল আলামীন তাঁর একান্ত সাহায্যকারী হোন। কবর থেকে শুরু করে পরবর্তী প্রত্যেকটি মঞ্জিলকে তাঁর জন্য সহজ, আরামদায়ক ও কল্যাণময় করে দিন। আল্লাহ তায়ালা তাঁর জীবনের সকল নেক আমল কবুল করে তাঁকে জান্নাতে উচ্চ মাকাম দান করুন এবং তাঁর শোকাহত পরিবার-পরিজনদেরকে এ শোক সহ্য করার তাওফিক দান করুন। আমীন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ