সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

সংঘাতের জেরে দুর্ভিক্ষের শিকার ইথিওপিয়ার ৪ লাখ মানুষ 

৩ জুলাই, রয়টার্স, বিবিসি, আল-জাজিরা : সাম্প্রতিক সংঘাতের জের ধরে ইথিওপিয়ার তাইগ্রে অঞ্চলে দুর্ভিক্ষ দেখা দিয়েছে। এ কারণে তীব্র খাদ্যাভাবে পড়েছে সেখানকার চার লাখের বেশি মানুষ। জাতিসংঘের কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, আট মাস ধরে চলছে এ সংঘর্ষ। আরও ১৮ লাখ মানুষ দুর্ভিক্ষের ঝুঁকিতে রয়েছে বলেও জাতিসংঘের কর্মকর্তারা জানান। এ ছাড়া সংঘাতের কারণে কমবেশি ৩৩ হাজার শিশু তীব্র অপুষ্টিতে ভুগছে বলে নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে তথ্য দেয়া হয়। স্থানীয় গত সোমবার তাইগ্রেতে বিভিন্ন আঞ্চলিক বিদ্রোহী বাহিনীর সঙ্গে চলমান সংঘর্ষের মধ্যে একতরফাভাবে অস্ত্রবিরতি ঘোষণা করে ইথিওপিয়া সরকার। তবে তাইগ্রে অঞ্চলের বিদ্রোহীরা তাদের ‘শত্রুদের’ এলাকাছাড়া করার শপথ নিয়েছে। এ ছাড়া সেখানে বিক্ষিপ্তভাবে সংঘর্ষের খবর মিলছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। ফলে, অস্ত্রবিরতির ঘোষণার পরও আবার সংঘর্ষ শুরু হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ।

বিদ্রোহী গোষ্ঠী তাইগ্রে পিপলস লিবারেশন ফ্রন্ট (টিপিএরএফ) ও সরকারি বাহিনীর মধ্যে সংঘাতে এরই মধ্যে হাজার হাজার মানুষ নিহত হয়েছে বলে খবর মিলেছে। ঘরছাড়া হয়েছে প্রায় ২০ লাখ মানুষ। সংঘাতে সরকার ও বিদ্রোহী দুই পক্ষের বিরুদ্ধেই গণহত্যা ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে।

কয়েক সপ্তাহ ধরে তাইগ্রের দুর্ভিক্ষ পরিস্থিতির নাটকীয় অবনতি হয়েছে বলে নিউইয়র্কে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে জানিয়েছেন জাতিসংঘের মানবিক সহায়তা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত প্রধান রমেশ রাজাসিংঘাম। তিনি বলেন, গত কয়েক দশকের মধ্যে এই অঞ্চল সবচেয়ে মারাত্মক দুর্ভিক্ষ দেখছে। সেখানে প্রায় ৫২ লাখ মানুষের মানবিক সহায়তা প্রয়োজন। গত বছরের নবেম্বরে দেশটির চলমান রাজনৈতিক সংস্কারকে অস্বীকার করে কিছু সেনাঘাঁটি দখল করে নেয় বিদ্রোহীরা। ওই মাসের শেষের দিকে আবার সরকারি বাহিনী তাইগ্রে অঞ্চলের রাজধানী শহর দখল করে নেয়। পরে বিদ্রোহীরা ফের রাজধানী শহরের দখলে নিয়ে নেয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ