শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

গাজীপুরে নির্বাচনী সংঘর্ষে যুবলীগ নেতাসহ আহত ১০॥ পিস্তলসহ আ.লীগ নেতা আটক

গাজীপুর সংবাদদাতা : গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনকে কেন্দ্র করে ভোট গ্রহণের আগের দিন (রোববার) দুই পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতিসহ অন্তত: ১০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বিদেশী পিস্তল ও গুলীসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের এক নেতাকে আটক করেছে।
আটককৃতের নাম মোঃ আসাদুজ্জামান বরুন (৪০)। তার বাড়ি কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুরে। সে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ দপ্তর সম্পাদক।
কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহত সভাপতি এসএম আলমগীর হোসেন ও স্থানীয়রা জানান, কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুরসহ ৬টি ইউনিয়ন পরিষদের নিবার্চন সোমবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে। রোববার দুপুরে জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদের আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে বাড়ির পার্শ্ববর্তী জামালপুর চৌরাস্তা গোল্লারটেক এলাকায় স্থানীয়দের সঙ্গে যুবলীগের সভাপতি এসএম আলমগীর হোসেন ও তার সমর্থকরা কথা বলছিলেন। এসময় বরুন ও সাইফুল মোড়লের নেতৃত্বে কয়েকজন যুবক সেখানে এসে হামলা চালায় এবং যুবলীগের সভাপতিসহ স্থানীয় লোকজনকে এলোপাতাড়ি মারধর করতে থাকে। এসময় হামলাকারীরা কয়েক রাউন্ড গুলী ছুঁড়ে। খবর পেয়ে আলমগীরকে বাঁচাতে স্বজনরা ঘটনাস্থলে গেলে হামলাকারীরা তাদেরকেও মারধর করলে দু’পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ হয়। এতে যুবলীগের সভাপতি এসএম আলমগীর হোসেন (৪২) ও উপজেলা আওয়ামীলগের যুব বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল মোড়ল (৪০) সহ অন্ততঃ জন আহত হয়। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ধাওয়া করে বরুনকে গুলী ভর্তি পিস্তলসহ আটক করে। বরুনকে অস্ত্রসহ পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। এলাকাবাসী আহত আলমগীর হোসেন (৪২), সাইফুল মোড়ল (৪০), শাহীনা বেগম (৪৮), হেনা বেগম (৩২), নিলয় (২২), নাঈম (২৬), আলম ফরাজী (৩৪) ও দুলাল ফরাজীকে (৪৮) কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।
এলাকাবাসী জানায়, জামালপুর ইউপি নিবার্চনে আওয়ামী লীগ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, জাকের পার্টি মনোনীত প্রার্থীসহ ৫ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এরমধ্যে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে মাহবুবুর রহমান ফারুক মাষ্টার নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। দলের মনোনয়ন না পেয়ে আওয়ামী লীগ নেতা খায়রুল আলম স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। একই পদে নির্বাচনে অংশ নিতে উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি এসএম আলমগীর হোসেন দলীয় মনোনয়ন চেয়ে পান নি। ফলে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতা-কর্মীদের মাঝে গত কয়েকদিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছিল।
কালীগঞ্জ থানার ওসি একেএম মিজানুল হক জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুই রাউন্ড গুলী ভর্তি একটি বিদেশী পিস্তলসহ বরুনকে আহতাবস্থায় আটক করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। একটি সুন্দর নিবার্চন উপহার দিতে পুলিশ কাজ করছে।
গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কালীগঞ্জ-কাপাসিয়া সার্কেল) ফারজানা ইয়াসমিন অস্ত্রসহ আ’লীগ নেতাকে আটকের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটক বরুন আহত। পুলিশ হেফাজতে সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
প্রসঙ্গতঃ কালীগঞ্জ উপজেলা ৭টি ইউনিয়ন পরিষদ ও একটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত। এরমধ্যে ৬টি ইউনিয়ন পরিষদের নিবার্চন সোমবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এগুলো হলো- তুমলিয়া, বক্তারপুর, জাঙ্গালীয়া, মোক্তারপুর, জামালপুর ও বাহাদুরসাদী ইউনিয়ন পরিষদ। নির্বাচনে মোট ৭৪টি কেন্দ্রের ৪৫৪টি কক্ষে সোমবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪ পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সীমানা জটিলতার কারণে নাগরী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন এ দফায় হচ্ছে না। ওই ৬টি ইউনিয়নে মোট ভোটারের সংখ্যা ১ লাখ ৯ হাজার ৬২৪ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৮১ হাজার ১৮৬ জন ও মহিলা ৭৮ হাজার ৪৩৮ জন। ওই ৬টি ইউনিয়নের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ১৬ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য প্রার্থী ৫৭ জন এবং সাধারণ সদস্য প্রার্থী ১৯৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে প্রতিদ্বন্ধি না থাকায় তুমিলিয়া ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আবুবকর মিয়া বাক্কু ইতোমধ্যে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ায়ম্যান নিবার্চিত হয়েছেন। এছাড়াও সদ্য সমাপ্ত কালীগঞ্জ পৌরসভার নিবার্চনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এস.এম রবীন হোসেন বিজয় লাভ করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ