ঢাকা, সোমবার 27 September 2021, ১২ আশ্বিন ১৪২৮, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিজরী
Online Edition

খুলনা বিভাগে রেকর্ড ২৮ জনের মৃত্যু

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: খুলনা বিভাগে একদিন পর আবারও করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু রেকর্ড হয়েছে। বেড়েছে শনাক্তের সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়ে বিভাগে ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে বিভাগে ৭৬৩ জনের শরীরে করোনার শনাক্ত হয়েছে। রবিবার (২০ জুন) দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে ১৯ জুন বিভাগে সর্বোচ্চ ২২ জনের মৃত্যু হয়। আর ১৭ জুন বিভাগে ১৮ জনের মৃত্যু হয়। তবে ১৮ জুন বিভাগে ৮ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় কুষ্টিয়ায় সাত জন, খুলনায় দুই জন, বাগেরহাটে দুই জন, সাতক্ষীরায় দুই জন, যশোরে চার জন, নড়াইলে একজন, মাগুরায় একজন, চুয়াডাঙ্গায় পাঁচ জন এবং ঝিনাইদহে চার জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে রোববার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৪৫ হাজার ৩২ জন। আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮২৫ জনে। এ সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৪ হাজার ৩২০ জন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের জেলাভিত্তিক তথ্যে জানা যায়, খুলনায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ২২৩ জন। মোট শনাক্ত ১২ হাজার ৮২১ জন। মারা গেছেন ২০৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৯৯২ জন। বাগেরহাটে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৬৮ জন। মোট শনাক্ত দুই হাজার ৫৫০ জন। মারা গেছেন ৬৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৭৫৪ জন। সাতক্ষীরায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ১৪ জন। মোট শনাক্ত দুই হাজার ৮৬৬ জন এবং মারা গেছেন ৬২ জন। সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৯৭৬ জন।

এছাড়া যশোরে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ৭৩ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত ৯ হাজার ৪৮০ জন। মারা গেছেন ১০৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ছয় হাজার ৭৪৮ জন। নড়াইলে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৪৪ জন। মোট শনাক্ত দুই হাজার ২৭২ জন। মারা গেছেন ৩১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৮৪৭ জন।

মাগুরায় ২৪ ঘণ্টায় কোনও শনাক্ত হয়নি। মোট শনাক্ত এক হাজার ৩৮৫ জন। মারা গেছেন ২৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ২২০ জন। ঝিনাইদহে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৯০ জন। মোট শনাক্ত তিন হাজার ৩৯৬ জন। মারা গেছেন ৬৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ৮৮২ জন। কুষ্টিয়ায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ১৬৪ জন। মোট শনাক্ত ছয় হাজার ৩৩৮ জন। মারা গেছেন ১৫৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ৮ জন।

চুয়াডাঙ্গায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৬৮ জন। মোট শনাক্ত দুই হাজার ৫৯১ জন। মারা গেছেন ৭৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৯৩৮ জন। মেহেরপুরে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ১৯ জন। এ নিয়ে মোট শনাক্ত এক হাজার ৩৩৩ জন। মারা গেছেন ৩৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯৫৫ জন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ