সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

মনোহরপুরে গৃহবধূকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা!

মেহেরপুর সংবাদদাতা : মেহেরপুর মনোহরপুর গ্রামের গৃহবধূ ররুবিনা খাতুন (২০) নামের এক গৃহবধূর আগুনে পুড়ে মৃত্যু হয়েছে। গত শুক্রবার সকালে মৃত অবস্থায় মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে তার লাশ ফেলে পালিয়েছে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন। যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন করে আগুনে পুড়িয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ রুবিনার পিতার পরিবারের। তবে রুবিনার স্বামীর ভাড়া বাসা এলাকার মানুষের দাবি, গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছে রুবিনা।নিহত রুবিনা খাতুনের দুই বছর বয়সী এক কন্যা শিশু রয়েছে। রুবিনা খাতুন মেহেরপুর সদর উপজেলার টেঙ্গারমাঠ গ্রামের রবগুল হোসেনের মেয়ে। পাশর্^বর্তী মনোহরপুর গ্রামের মিলন হোসেনের সাথে চার বছর আগে রুবিনার বিয়ে হয়। স্বামী মিলন হোসেন একটি এনজিওতে মাঠকর্মী হিসেবে চাকরির সুবাদে গাংনী উপজেলার বামন্দী বাজার এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন এই দম্পত্তি। মিলন-রুবিনা দম্পত্তির বাসা মালিকের স্ত্রী শামীমা আক্তার রিতা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে রান্না নিয়ে দু’জনের ঝগড়া শুরু হয়। রাত নয়টার দিকে রুবিনা গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেয়। স্বামী মিলনের চিৎকারে বাসা মালিকের পরিবারসহ আশেপাশের লোকজন গিয়ে রুবিনার গায়ের আগুন নেভায়। তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি আত্মহত্যা বলে দাবি করেন বাসা মালিকসহ আশেপাশের লোকজন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ