ঢাকা, বৃহস্পতিবার 01 October 2020, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

ইতালি থেকে ফেরত পাঠানো হলো দুই ফ্লাইটের ১৬৭ বাংলাদেশিকে

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: ইতালির রোমের ফিউমিসিনো ও মিলানের মালপেনসা বিমানবন্দরে অবতরণ করা ১৮২ বাংলাদেশির মধ্যে ১৬৭ জনকে ফেরত পাঠানো হয়েছে।বুধবার দুটি ভিন্ন ফ্লাইটে এই দুই বিমানবন্দরে অবতরণ করা হলে তাদের নামতে না দিয়ে ফেরত পাঠানো হয়।একই দিন দুটি ফ্লাইটে তারা ইতালি গিয়েছিলেন।

জানা গেছে, ফ্লাইটের এক বাংলাদেশি নারী সন্তানসম্ভাবা থাকায় তাকে ফেরত না পাঠিয়ে অ্যাম্বুলেন্স ডেকে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়।একই সঙ্গে থাকা অন্য দেশের বেশ কিছু নাগরিককে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। 

ইতালির রোম দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) মো. আরফানুল হক গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার স্থানীয় সময় দুপুর ১টার দিকে ফিউমিসিনো বিমানবন্দরে ওই বিমানটি অবতরণ করে।

এর আগে সোমবার বাংলাদেশ থেকে যাওয়া যাত্রীদের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করে ইতালি কর্তৃপক্ষ। এরপর বাংলাদেশের সঙ্গে এক সপ্তাহের জন্য সকল ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

তবে বাংলাদেশের সঙ্গে ফ্লাইট বাতিল করলেও কাতারের সঙ্গে ফ্লাইট চালু আছে ইতালির। সেই হিসেবে কাতারের রাজধানী দোহা থেকে যাওয়া ওই ফ্লাইটটির বাংলাদেশি যাত্রীদের ইতালি প্রবেশে কোনো বাধা থাকার কথা ছিল না। কিন্তু তাদের দেশটিতে প্রবেশ করতে না দিয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

এদিকে বুধবার ইতালির বেশি কিছু জাতীয় দৈনিকে বাংলাদেশের রিজেন্ট হাসপাতালের ভুয়া করোনা পরীক্ষা নিয়ে সংবাদ ছেপেছে। দৈনিক ইল মেসসাজ্জেরো প্রিন্ট সংস্করনে প্রথম পাতায় শিরোনাম করেছে, 'বাংলাদেশে ভুয়া করোনা সার্টিফিকেট বিক্রয় হয়!

সোমবার বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে প্রবেশ করাদের মধ্যে যাদের করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে তাদেরকে আইসোলেয়শন অথবা হাসপাতালে পাঠানো হয়। আর বাকিদের হোম করেন্টাইনে রাখা হয়েছে রোমের হিলটন হোটেলে। জানা গেছে, এই হোটেলে জনপ্রতি এক দিনের ভাড়া বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৫০ হাজার থেকে এক লাখ।

ডিএস/এএইচ

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ