ঢাকা, বৃহস্পতিবার 24 September 2020, ৯ আশ্বিন ১৪২৭, ৬ সফর ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

যুক্তরাষ্ট্র ক্ষমা চাইলে আলোচনায় বসতে রাজি ইরান: রুহানি

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র ক্ষমা চাইলে আলোচনার টেবিলে বসতে রাজি আছে ইরান। এমনটাই জানিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি।

আজ বুধবার (২৪ জুন) রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে তিনি এ কথা বলেন।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, ইরানি প্রেসিডেন্ট জানান যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসতে ইরানের সমস্যা নেই। তবে এ উদ্যোগ তখনই সম্ভব হবে যখন যুক্তরাষ্ট্র তার কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চাইবে। যখন ওয়াশিংটন পরমাণু চুক্তি'র প্রতিশ্রুতিগুলো পূরণ করবে। পাশাপাশি, চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার জন্য উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ব্যাপারে প্রস্তুত থাকবে।

হাসান রুহানি আরও বলেন, তেহরানকে আলোচনায় বসতে ওয়াশিংটন যেসব আহ্বান জানায় তা নিছকই মিথ্যাচার আর শব্দের খেলা।

২০১৫ সালে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের (ইউএনএসসি) স্থায়ী পাঁচ সদস্য দেশ ও জার্মানির সঙ্গে পরমাণু চুক্তি করে ইরান। তবে ওই চুক্তির বিরোধিতা করে ট্রাম্প নির্বাচনের আগেই জানান, ইরানের ক্রমবর্ধমান প্রভাব বিস্তার রোধ এবং তাদের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিয়ন্ত্রণে কিছু নেই ওই চুক্তিতে। যার ফলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮ সালের মে মাসে মিত্র দেশগুলোর পরামর্শ উপেক্ষা করেই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

প্রসঙ্গত, চুক্তি অনুসারে ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি সীমিত করার বিনিময়ে দেশটির উপর থেকে সব অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু, যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় তার মিত্র দেশগুলোও ওই সিদ্ধান্তের সঙ্গে একজোট হয়ে ইরানকে অর্থনৈতিকভাবে কোণঠাসা করে ফেলেছে।

এছাড়াও, চলতি বছর জানুয়ারিতে ইরাকে মার্কিন ড্রোন হামলায় ইরানের রেভুলেশনারি গার্ডসের কুদস বাহিনীর কমান্ডার কাশেম সোলেমানির মৃত্যুর ঘটনা দুই দেশকে যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে ঠেলে দেয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ