শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

ইরানী নৌবাহিনীর ‘ফ্রেন্ডলি ফায়ারে’ ১৯ নাবিক নিহত

১১ মে, বিবিসি : প্রশিক্ষণ চলাকালে ইরানের নৌবাহিনীর ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র নিজ পক্ষের একটি জাহাজে আঘাত হেনেছে, এতে ১৯ নাবিক নিহত ও আরও ১৫ জন আহত হয়েছেন।

গত রোববার ওমান উপসাগরের এ ঘটনা ঘটেছে বলে ইরানি নৌবাহিনীর বরাত দিয়ে জানিয়েছে বিবিসি।

ইরানের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, নৌবাহিনীর ফ্রিগেট জামারান দিয়ে নতুন একটি জাহাজ-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করা হচ্ছিল, ওই ক্ষেপণাস্ত্র কোনারক নামের রসদ সরবরাহকারী ছোট একটি জাহাজ গিয়ে আঘাত হানে।

হরমুজ প্রণালীর কাছে ওমান উপসাগরে প্রশিক্ষণ মহড়া চলাকালে ঘটনাটি ঘটে।

ইরানের সশস্ত্র বাহিনী কৌমলগত পানিসীমায় নিয়মিত মহড়া চালিয়ে থাকে। গত রবিবার তেমনই একটি মহড়া চলার সময় জামারান যুদ্ধজাহাজ থেকে একটি জাহাজবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষামূলকভাবে ছোড়া হয়। আর ক্ষেপণাস্ত্রটি তখন ইরানের আরেক যুদ্ধ জাহাজ কোনারাককে গিয়ে আঘাত করে। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ‘রবিবার দুপুরে ইরানের দক্ষিণ উপকূলে বন্দর ই জাস্ক পানিসীমায় সামরিক মহড়া চলার সময় একটি ক্ষেপণাস্ত্র কোনারাক জাহাজে আঘাত করে।’

ওয়েবসাইটটিতে আরও বলা হয়, ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জন্য যে লক্ষ্যবস্তু নির্ধারণ করা হয়েছিল তার সঙ্গে কোনারাক জাহাজের অবস্থানস্থলের যথেষ্ট ব্যবধান ছিল না। জামারান ও কোনারাক এ দুইটি জাহাজই ইরানি নৌবাহিনীর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ