ঢাকা, শুক্রবার 10 July 2020, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১৮ জিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ২১ লাখ ছাড়ালো

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে এ পর্যন্ত ১ লাখ ৪৫ হাজার ৫২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রাণঘাতী ভাইরাসটি গত ২৪ ঘণ্টায় ৭ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, শুক্রবার সকাল পর্যন্ত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন বিশ্বের ২১ লাখ ৮২ হাজার ১৯৭ জন। এদের মধ্যে বর্তমানে ১৪ লাখ ৮৯ হাজার ৩৮১ জন চিকিৎসাধীন এবং ৫৬ হাজার ৫৫৮ জন (৪ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন।

এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে ৫ লাখ ৪৭ হাজার ২৯৫ জন (৭৯ শতাংশ) সুস্থ হয়ে উঠেছেন এবং ১ লাখ ৪৫ হাজার ৫২১ জন (২১ শতাংশ) রোগী মারা গেছেন।

সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এ পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা ৩৩ হাজার অতিক্রম করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকরা বলেছেন, কার্যকর কোনো ভ্যাকসিন না পেলে সামাজিক দূরত্ব ২০২২ সাল পর্যন্ত পালন করার প্রয়োজন হতে পারে বিশ্বকে।

১ লাখ ৮২ হাজার লোকের আক্রান্ত হবার মধ্য দিয়ে আক্রান্তের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের পরে আছে স্পেন। সেখানে মারা গেছে ১৯ হাজারের বেশি লোক। আর মৃত্যুর সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ইতালি (২১ হাজার ৬০০র বেশি)। গতকাল পর্যন্ত ফ্রান্স ও জার্মানিতে আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে ১ লাখ ৪৭ হাজার ও ১ লাখ ৩৫ হাজার। ইরানে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৭৭ হাজার আর মারা গেছে ৪ হাজারের বেশি লোক।

আমাদের প্রতিবেশী ভারতে গতকাল পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১২ হাজার ৮০০ জন। আর মারা গেছে ৪ শতাধিক। ভারতে বেশ কয়েকটি প্রদেশকে হটস্পট ঘোষণা করা হয়েছে। অন্যদিকে পাকিস্তানে রোগী ধরা পড়েছে প্রায় ৮ হাজার এবং সেখানে মৃত্যু হয়েছে ১২৮ জনের। অন্যদিকে, সৌদি আরবে রোগী শনাক্ত হয়েছে ৬ হাজার ৩৮০ জন এবং মারা গেছে ৮৩ জন। সেখানে কঠোরভাবে সামাজিক দূরত্ব পালন করা হচ্ছে। অন্যদিকে, জাপানে গতকাল দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। কয়েকদিন আগে কয়েকটি স্টেটে জরুরি অবস্থা জারি করলেও করোনা পরিস্থিতি দিন দিন অবনতি হওয়ায় আগামী ৬ মে পর্যন্ত দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ