বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে  সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত

 

স্টাফ রিপোর্টার : আগামী শিক্ষাবর্ষ (২০২০-২১) থেকে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এতে মানবিক, ব্যবসায় ও বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা উচ্চ মাধ্যমিকের পাঠ্যবইয়ের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা প্রশ্নপত্রে সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে একযোগে অনুষ্ঠিত সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের ভিসিদের সঙ্গে গতকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) এক মতবিনিময় সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ইউজিসি চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. কাজী শহীদুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের ভিসি এবং তাদের মনোনীত প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। ইউজিসিতে আয়োজিত এ সভায় সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ে ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. দিল আফরোজা বেগম। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর। ইউজিসির সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

ইউজিসি চেয়ারম্যান বলেন, 'ভর্তি পরীক্ষা পদ্ধতির বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার জন্য ১৯৭৩ এর অধ্যাদেশ বলে গঠিত চারটি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কিছু নির্বাচিত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে শিগগিরই এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার জন্য বিভিন্ন সময়ে তাদের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। গত বছর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের উপাচার্যদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদ সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়। সভায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিরা দৃঢ়কণ্ঠে সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার জন্য তাদের অভিমত পুনর্ব্যক্ত করেন।

প্রফেসর কাজী শহীদুল্লাহ বলেন, ‘আজ দেশ ও জাতির আকাক্ষা হচ্ছে, সমন্বিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হোক। এখানে দ্বিমতের কোনো অবকাশ নেই। আমরা যদি সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করি তাহলে দেশ ও জাতি আমাদের অভিনন্দন জানাবে।'

উল্লেখ্য, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আলাদাভাবে আলাদা পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয় বলে এইচএসসি পাস শিক্ষার্থীদের দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ঘুরে পরীক্ষা দিতে হয়। একই বিষয়ে ভর্তি হওয়ার পরীক্ষা দিতে তাদের ভিন্ন ভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ভিন্ন ধরনের প্রস্তুতি নিতে হয়।

এ ব্যবস্থার বদলে কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা একদিনে এক পদ্ধতিতে নেয়ার কথা ভাবছে সরকার, যাকে বলা হচ্ছে সমন্বিত বা গুচ্ছ পদ্ধতি।

এ পদ্ধতিতে একজন শিক্ষার্থী একবার পরীক্ষা দিলেই চলবে, প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে তাকে গুচ্ছে থাকা কোনো একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ দেয়া হবে, যেভাবে মেডিকেল কলেজগুলোতে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ