বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

উচ্চ আদালতে খালেদা জিয়ার জামিন পাওয়ার সুযোগ অবশ্যই আছে -ড. কামাল হোসেন

গতকাল মঙ্গলবার ড. কামাল হোসেনের কার্যালয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার: উচ্চ আদালতে বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জামিন পাওয়ার সুযোগ আছে বলে মন্তব্য করেছেন ড. কামাল হোসেন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকের পর সাংবাদিকরা তার কাছে প্রশ্ন রাখলে তিনি এই মন্তব্য করেন।
আপীল বিভাগে খালেদা জিয়ার যে মামলার শুনানি চলছে, এরকম মামলায় তার জামিন পাওয়ার সুযোগ আছে কিনা প্রশ্ন করা হলে সুপ্রিম কোর্টের প্রবীণ এই আইনজীবী বলেন, সুযোগ অবশ্যই আছে। আমি বলছি, সুযোগ অবশ্যই আছে। এর থেকে পরিষ্কার করে কী বলব।
আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মানবিক কারণে জামিন পাওয়ার যোগ্য। আজকের সভার সিদ্ধান্তে সেটা স্পষ্ট করে বলা হয়েছে।
এর আগে ফ্রন্টের সিদ্ধান্ত জানিয়ে নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আজকের সভায় কারাবন্দি সাবেক তিন বারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা হয় এবং উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। আমরা জানি যে, তাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে দীর্ঘ ৬৬৪দিন কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছে। যে মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়া হয়েছে তা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। বিশেষ করে তার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় আমরা তার আশু মুক্তি দাবি করছি। আজকের সভায় আমাদের প্রধান দাবি এটাই। আমরা মনে করি এই দাবি মানবিক এবং তিনি জামিন পাওয়ার অধিকার রাখেন।
তিনি বলেন, যদি কোনো কারণে তার প্রতি সুবিচার না করা হয়, অবিচার করা হয়, জামিন দেয়া না হয়, মুক্তি দেয়া না হয়। তাহলে যে পরিস্থিতির উদ্ভব হতে পারে তার জন্য এই সরকার সর্বোতভাবে দায়ী থাকবেন- এ ব্যাপারে আমরা সরকারকে সতর্ক করছি।
খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাতের বিষয় অগ্রগতি জানতে চাইলে জেএসডি সভাপতি আসম আবদুর রব বলেন, আমরা গত ২২ তারিখে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সাথে দেখা করেছিলাম। উনি অত্যন্ত সরল মনে আমাদেরকে বললেন, উনার সাথে (খালেদা জিয়া) আত্মীয়-স্বজনসহ পরিবারের সবাই দেখা করছেন। আপনারা কেনো পারবেন না। অবশ্যই দেখা করতে পারবেন। তার অর্থ নীতিগতভাবে উনি আমাদেরকে দেখা করার অনুমতি দিয়ে দিয়েছেন। বললেন যে, শুধু আ্ইজি প্রিজনের কাছে আমি দায়িত্বটা দিচ্ছি যাতে অফিসিয়াল ফরমেলেটিজটা মেনটেইন করা হয়।
রব জানান, এই পর্যন্ত আইজি প্রিজন এর কাছে আমি বহুবার ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে প্রতিনিধি পাঠিয়েছি, তারা আমাদেরকে সদত্তোর দিতে পারে নাই। তার অর্থ বুঝতে পারছি, তারা আমাদেরকে খালেদা জিয়াকে দেখা করার সুযোগ দিচ্ছেন না।
গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় মতিঝিলের চেম্বারে ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠক হয়। ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে রব ও মান্না ছাড়া বিএনপির ড. আবদুল মঈন খান, গণফোরামের অধ্যাপক আবু সাইয়িদ, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, বিকল্পধারার অধ্যাপক নুরুল আমিন ব্যাপারী, জেএসডির মো. সিরাজ মিয়া ও গণস্বাস্থ্য সংস্থার ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ