শনিবার ১৬ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

মার্কিনীরা ঠাণ্ডায় নাকাল  

৩০ জানুয়ারি, বিবিসি : সুতীব্র শীতে বিপর্যস্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনজীবন। এই সপ্তাহটি মার্কিনীদের জন্যে যেনো নরক-যন্ত্রণা বয়ে আনতে যাচ্ছে। দেশটির ইতিহাসে তাপমাত্রা এখন সবচেয়ে কম। বাঘা বাঘা আবহাওয়াবিদরা বলছেন, এক জেনারেশনে একবারই দেখা যায় এতো তীব্র শীত। উত্তর মেরুর ঘূর্ণিবাতাস শীতে কাহিল করে ফেলেছে যুক্তরাষ্ট্রের মানুষকে, তুষার ঝড়ে গ্রাণহানির ঘটনা এইতো কদিন আগের। দেশটির মধ্য পশ্চিমাঞ্চলে এই নাজুক হাল থাকবে আরো দুদিন, তাপমাত্রা কমতে থাকবে ক্রমেই। ফারেনহাইটে মাইনাস ৬৪ হবে, সেন্টিগ্রেডে ৫৩! এরই মধ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে উইসকনসিন, মিশিগান, ইলিনয়স, আর দক্ষিণের আলাবামা ও মিসিসিপিতে। বিবিসি।

আইওয়া অঙ্গরাজ্যের আবহাওয়া-কর্তারা রাজ্যের মানুষকে গভীর শ্বাস নিতে বারণ করেছেন। ঘরের বাইরে গেলে খুব কম কথা বলার পরামর্শ দিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিস (এনডব্লিউএস) বলেছে, এমন শীতে ১০ মিনিট খোলা জায়গায় থাকলে ফ্রস্টবাইটে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। এনডব্লিউএস-এর আবহাওয়া-বিশেষজ্ঞ জন গেগন বলেছেন, এই রকম তীব্র শৈত্যগ্রবাহ এক জীবনে একবারই দেখা যায়।

পূর্বাভাস বলছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় আরো মারাত্মক হয়ে উঠবে পরিস্থিতি। তাপমাত্রা আরো নেমে যাবে, শিকাগো হয়ে উঠবে এন্টার্কটিকার চেয়েও শীতল! ইলিনয়স সিটিতে তাপমাত্রা মাইনাস ২৭ ডিগ্রি ফারেনহাইটে নামবে বলে আশংকা করা হচ্ছে। গ্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলবে এই উইন্টার স্টর্ম। কোথাও কোথাও দু’ফুট উচ্চতায় বরফ জমে গেছে, ইঞ্চি ইঞ্চি জমেছে গ্রায় সব জায়গাতেই। আলাবামা ও জর্জিয়াতেও তুষারপাতের পদধ্বনি শুনছেন আবহাওয়াবিদরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ