বুধবার ২০ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

ঢাকা লিট ফেস্ট শুরু ৮ নবেম্বর

স্টাফ রিপোর্টার : ভাষা কেনো প্রতিবন্ধকতা নয়। সব ভাষা সব দেশের সাহিত্যই সমাজকে আলোকিত করার কথা বলে। শোনায় অন্ধকার দূর করবার কথা। ছড়িয়ে দেয় শান্তির বারতা। তাই দেশীয় সাহিত্যসহ বিশ্ব-সাহিত্য, রাজনীতি, সমাজনীতি, বিজ্ঞানের আলাপ আর আদান-প্রদান সমৃদ্ধ করে সমাজকেই। সে প্রত্যয়েই আগামী ৮ নভেম্বর শুরু হতে যাচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় সাহিত্য উৎসব ‘ঢাকা লিট ফেস্ট ২০১৮’। যেখানে অংশ নেবেন বাংলাদেশের সাহিত্যিকদের একটা বিরাট অংশ। থাকবেন বিশ্বের ২৫টির দেশের শতাধিকের বেশি লেখক, সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ, অর্থনীতিবিদ, অভিনেতা, নির্মাতা, বক্তা, পারফর্মার এবং চিন্তাবিদ। অষ্টমবারের মতো এই উৎসবের আয়োজন করেছে যাত্রিক।
গতকাল সোমবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানান আয়োজকরা। এতে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা লিট ফেস্টের তিন পরিচালক কথাসাহিত্যিক এবং বাংলা ট্রিবিউন ও ঢাকা ট্রিবিউনের প্রকাশক কাজী আনিস আহমেদ, কবি সাদাফ সায্ সিদ্দিকী ও কবি আহসান আকবর।
ঢাকা লিট ফেস্টের পরিচালক কাজী আনিস আহমেদ বলেন ‘বাংলা সাহিত্যিকদের মধ্যে একমাত্র রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরই নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন। কিন্তু কাজী নজরুল ইসলাম থেকে শুরু করে পঞ্চকবিসহ বাংলা ভাষার অনেক লেখকই উঁচুমানের সাহিত্য রচনা করেছেন। কিন্তু ইংরেজি ভাষায় তাদের সাহিত্যকর্মগুলো সেভাবে প্রকাশিত না হওয়ায় তারা অনেকেই অন্তরালে রয়ে গেছেন। সেই প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে বাংলা ভাষার লেখকদের সাহিত্যকর্ম ইংরেজিতে অনুবাদের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আর সেটা উৎসাহ দিয়ে আসছে লিট ফেস্ট’।
বিশ্বের ২৫ দেশের তিন শতাধিক সাহিত্যিক, বক্তা, পারফর্মার এবং চিন্তাবিদ এই তিন দিনের আয়োজনে অংশ নেবেন। পুলিৎজার, অন্দাজ্জে, বুকারের মতো সাহিত্য পুরস্কার বিজয়ী লেখকরা আসছেন এবারের উৎসবে। উৎসবের মূল আকর্ষণ পুলিৎজার বিজয়ী সাহিত্যিক অ্যাডাম জনসন। আসছেন পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক মোহাম্মদ হানিফ। দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকা লিট ফেস্টে আসছেন অস্কার বিজয়ী অভিনেত্রী টিলডা সুইন্টন। এবার তিনি আসছেন নিজের লেখালেখি নিয়ে কথা বলতে। এপার-ওপার বাংলার জনপ্রিয় লেখক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় এবং নারীবাদী লেখিকা-অভিনেত্রী নন্দিতা দাশও আসছেন। তাদের একজন কথা বললেন বাংলা সাহিত্য নিয়ে, অন্যজন কথা বলবেন নারী অধিকার, অভিনয় জীবন ও বহুল আলোচিত হ্যাশট্যাগ মি টু আন্দোলন নিয়ে। সবার আগ্রহ দৃষ্টি থাকবে বলিউড-তারকা মনীষা কৈরালার দিকেও। প্রথমবারের মতো তিনিও আসছেন এবারকার উৎসবে। তার অভিনয় জীবন ছাড়াও ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে বেঁচে থাকার এক মানবিক গল্প তুলে ধরবেন উৎসবের একটি অধিবেশনে। এরই মধ্যে মনীষা কৈরালা এ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে তার জীবনের প্রথম গ্রন্থ ‘দ্য বুক অব আনটোল্ড স্টোরিজ’প্রকাশের ঘোষণা দিয়েছেন। ঢাকা লিট ফেস্টে তিনি তার এ বই ও জীবন নিয়ে এক ঘন্টার একটি বিশেষ সেশনে অংশ নেবেন। দুইটি অধিবেশনে অংশ নেবেন তিনি। উৎসবের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার মূল মঞ্চ আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে বেলা সোয়া ১১টা থেকে দুপুর সোয়া ১২টা পর্যন্ত ‘ব্রেকিং বেড’ শিরোনামে সেমিনারে অংশ নেবেন তিনি। তার সঙ্গে আলাপচারিতায় অংশ নেবেন ভারতের নারীবাদী লেখক, অভিনেত্রী ও নির্মাতা নন্দিতা দাশ। সঞ্চালনা করবেন উৎসবের অন্যতম পরিচালক সাদাফ সায্ সিদ্দিকী। উৎসবের সমাপনী দিন শনিবার একই মঞ্চে আবারও মঞ্চে আসবেন মনীষা কৈরালা সাদাফ সায্ সিদ্দিকীর সাথে ‘হিলড্’ শিরোনামে আলাপচারিতায়। এই অধিবেশন তিনি তার জীবন কাহিনী শোনাবেন।
বাংলাদেশি লেখক, সাহিত্যিক, সমালোচক, প্রকাশক ও চিন্তাবিদের মধ্যে থাকবেন-শামসুজ্জামান খান, অর্থনীতিবিদ হোসেন জিল্লুর রহমান, বিনায়ক সেন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকের, কথাশিল্পী সেলিনা হোসেন, সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ইমদাদুল হক মিলন, মঈনুল আহসান সাবের, কবি রুবী রহমান, আসাদ চৌধুরী, কামাল চৌধুরী, মুস্তাফিজ শফি, বিশ্লেষক-সাংবাদিক আফসান চৌধুরী, নির্মাতা অমিতাভ রেজা, অনুবাদক ফকরুল আলম, অভিনেত্রী বন্যা মির্জাসহ দেশের সাহিত্যিক অঙ্গনের উজ্জ্বল করা দেড় শতাধিক মুখ। প্রতিদিন এক যোগে ছয়টি মঞ্চে সম-সাময়িক বিষয় ছাড়া সাহিত্যের নানা দিক নিয়ে শতাধিক অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। সেই সঙ্গে থাকছে শেকড়ের গান।
সমাপনী- বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৫টির দেশের দুই শতাধিকের বেশি কবি, লেখক, সাহিত্যিক, বক্তা, পারফর্মার এবং চিন্তাবিদের অংশগ্রহণের তিন দিনের মিলন মেরার সমাপনী অনুষ্ঠান হবে সন্ধ্যা সাতটায়, আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে। অংশ নেবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।
 সাহিত্যের এ মিলনমেলায় অংশ নিতে চাইলে অনলাইনে নিবন্ধন করে ফেলতে হবে দ্রুত। এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে নিবন্ধন প্রক্রিয়া। নিরাপত্তার কারণে এবারও www.dhakalitfest.com/register/ এই লিংকে গিয়ে কয়েকটি সাধারণ বিষয় পূরণের মাধ্যমে করতে পারবেন নিবন্ধন। উৎসবের শেষদিন পর্যন্ত চলবে রেজিস্ট্রেশন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ