বুধবার ২৫ মে ২০২২
Online Edition

হস্তান্তরিত বস্ত্রকলের জন্য সরকারের সহায়তা চেয়েছে সমন্বয় পরিষদ

 

স্টাফ রিপোর্টার: শ্রমিক-কর্মচারীদের ব্যবস্থাপনায় হস্তান্তরিত বস্ত্রকলগুলো সুষ্ঠু পরিচালনার জন্য সরকারের সহায়তা চেয়েছেন এই মিলগুলোর সমন্বয় পরিষদ।

বুধবার শিল্প মন্ত্রণালয়ে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সঙ্গে বৈঠকের সময় এ সহায়তা চান হস্তান্তরিত ৯টি বস্ত্র মিলস সমন্বয় পরিষদের নেতারা। এগুলো সুষ্ঠু পরিচালনার স্বার্থে ২০১৪ সালের অক্টোবরে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় পরিদর্শনকালে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নির্দেশনা দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন তারা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আবদুল হালিম, অতিরিক্ত সচিব মো. এনামুল হক, বাংলাদেশ বস্ত্র ও পোশাক শিল্প শ্রমিক লীগের সভাপতি জেডএম কামরুল আনাম, সূতা ও বস্ত্র কল্যাণ শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি বদরুল আলম খান লাভলু প্রমুখ।  

বৈঠকে হস্তান্তরিত বস্ত্রকলগুলোর বর্তমান সমস্যা এবং এর সমাধানের উপায় নিয়ে আলোচনা হয়। এ সময় পরিষদের নেতারা বলেন, উন্নত ব্যবস্থাপনার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ২০০১ সালে ২১ মার্চ নয়টি বস্ত্রকল শ্রমিক-কর্মচারীদের মালিকানায় হস্তান্তর করা হয়েছিল। পরবর্তীতে বিএনপি-জামায়াত সরকারের আমলে বিমাতাসুলভ আচরণের ফলে এগুলো ধীরে ধীরে অলাভজনক ও রুগ্ন শিল্পে পরিণত হয়েছে। সুষ্ঠু পরিচালনার স্বার্থে শ্রমিক কর্মচারীদের পক্ষ থেকে মিলগুলোকে বিএমআরই এবং ব্যাংকঋণ প্রদানের প্রস্তাব করলেও বিএনপি সরকারের আমলে তা প্রত্যাখ্যাত হয়।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার শ্রমিকবান্ধব সরকার। ইতোমধ্যে শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৮ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। শ্রমিকদের মালিকানা ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে ৯টি বস্ত্র কল শ্রমিক কর্মচারী ব্যবস্থাপনায় ছেড়ে দিয়ে অনন্য নজির স্থাপন করেছিলেন।

মন্ত্রী এসব বস্ত্রকলের বাস্তব সমস্যাগুলো সুনির্দিষ্টভাবে লিখিত আকারে তুলে ধরার জন্য নেতৃবৃন্দকে পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, পরামর্শের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও সংস্থার সঙ্গে আলোচনা করে সমস্যার কার্যকর সমাধান করা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ