সোমবার ১৩ জুলাই ২০২০
Online Edition

জোর করে বিয়ে দেওয়ায় পিতা-মাতার উপর অভিমান করে গৃহবধূর আত্মহত্যা

ধামইরহাট (নওগাঁ) সংবাদদাতা: নওগাঁর ধামইরহাটে মেয়ের অমতে বিয়ে দেওয়ার পরিনাম দাড়ালো আত্মহত্যা। এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে থানা পুলিশ জানায়, গত প্রায় ৬ মাস পূর্বে উপজেলার আগ্রাদ্বিগুন ইউনিয়নের হযরতপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে রিফা সানজিদা আকতার (১৬) এর সাথে একই ইউনিয়নের নিকটবর্তী  কাশিপুর গ্রামের ধনী আহমেদের সাথে ছেলে রেজাউল করিম (৩০) এর সাথে বিয়ে প্রস্তাব আসলে মেয়ে সানজিদা আকতার দ্বিমত পোষন করেন। পিতা-মাতা ধনী জানাই দেখে তাদের পছন্দ হওয়ায় মেয়ের অমতে বিয়ে দিয়ে দেয়। এরপ্রেক্ষিতে ২৬ ফেব্রুয়ারী মেয়েকে শশুরবাড়ীতে পাঠালে  রাতে খাবার খেয়ে স্বামী বাড়ির বাহিরে যায়। পরে বাড়ী এসে দরড়া বন্ধ দেখে স্থানীয়দের সহযোগিতায় স্বামী রেজাউল করিম স্ত্রী গলায় ফাঁস দেওয়া ও মৃত অবস্থায় পান। খবর পেয়ে ওসি (তদন্ত) ছানোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাা তদন্তের জন্য প্রেরণ করেন। অল্প বয়সে মেয়ের অমতে বিয়ে দেওয়ার কারণেই এই অকালমৃত্যু বলে মনে করেন স্থানীয়রা। তবে পিতা-মাতা জামাই ও মেয়ের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ