সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

ফেব্রুয়ারি মাসে রাজনৈতিক সন্ত্রাস

মুহাম্মদ ওয়াছিয়ার রহমান : [চার]
সাবেক ছাত্রলীগ চবি শাখা সভাপতি আলমগীর টিপু ও সাবেক সহ-সভাপতি রেজাউল হকের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৬ জন আহত হয়। পুলিশ হল থেকে ২টি এলজি ও বস্তা ভর্তি রামদা উদ্ধার করে। ঘটনার সাথে জড়িত মর্মে ৮ জনকে আটক করে। ঢাকা কলেজে পূর্ব ঘটনার জেরে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে কলেজ শাখা যুগ্ম-আহবায়ক আইউব আলী আহত হয়। ছাত্রলীগ মাদারীপুর গ্রুপ ও রাজবাড়ী গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষে ছাত্র নেতা এস.এম জোহা, এইচ.এম আকমল হোসেন ও ফুয়াদ হাসানের হামলায় আইউব আলী আহত হয়। ২১ ফেব্রুয়ারি ঢাকার কেন্দ্রীয় মিনারে ছাত্রলীগ তিন গ্রুপের মারামারি। ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় একাত্তর হল, সোহরাওয়ার্দী কলেজ ও হাবিবুল্লাহ বাহার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা শহীদ মিনারে আগে ফুল দেয়া নিয়ে এই মারামারি হয়। ২২ ফেব্রুয়ারি মেহেরপুরের গাংনীতে দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের দায়ে উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের ৪ নেতা-কর্মীকে বহিস্কার করে সংগঠনটি। বহিস্কৃতরা হলো- গাংনী উপজেলা ছাত্রলীগ যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক ইমরান হাবিব, ইন্টু রাজ, মুস্তাকিন ও পৌর সহ-সভাপতি জীবন আকবর। ২৩ ফেব্রুয়ারি গাজীপুরের টঙ্গীতে ছাত্রলীগের মাদক কারবারীদের হামলায় আজিজ রানা, অজিজুল ইসলাম নয়ন ও রাকিব আহত হয়। ২৪ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সদস্য ও দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি সাব্রী সাবেরীন গালিবকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি দীন ইসলাম লিখন, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক বায়োজিদ ইসলাম ও উপ-সমাজসেবা সম্পাদক (বহিস্কৃত) মুনতাসির আহমেদ হৃদয়সহ বেশ কয়েকজন বেধড়ক মারপিট করে। ২৫ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের মিরসরাই পুলিশ উত্তর জেলা ছাত্রলীগ যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আব্দুল আওয়াল তুহীনকে নিজ বাড়ী থেকে আটক করে। ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের সামনে জেলা ছাত্রলীগ সাবেক সহ-সভাপতি আশফাক আল-রাফী শাওন গুলিবিদ্ধ হয়। পুলিশের ধারণা দলীয় কোন্দলে এ ঘটনা ঘটে। অন্য দিকে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডঃ সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন ও বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের উপর হামলায় পুলিশ জেলা ছাত্রলীগ সাবেক সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিনকে আটক করে। রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন নিয়ে জেলা ছাত্রলীগকে শোকজ করে কেন্দ্রীয় সংগঠন। জেলা ও উপজেলাকে পাশ কাটিয়ে কেন্দ্র একক ভাবে ৬ ফেব্রুয়ারি উপজেলা কমিটি ঘোষণা করে। এ নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে উপজেলা আওয়ামী লীগ, জেলা ও উপজেলা ছাত্রলীগ ১২ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্র ঘোষিত কমিটি স্থগিত করে নতুন কমিটি ঘোষণা করে, ফলে কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত উপেক্ষিত হওয়ায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।
২৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এস.এম হলে এহসান রফিক নামে এক ছাত্রকে মারধর করায় ছাত্রলীগ এস.এম হল শাখা সহ-সম্পাদক ওমর ফারুক, ঢাবি শাখা সদস্য সামিউল ইসলাম, সদস্য আহসান উল্লাহ, সহ-সম্পাদক ফারদিন আহমেদ মুগ্ধ, সহ-সম্পাদক রুহুল আমীন বেপারী, উপ-সম্পাদক মেহেদী হাসান হিমেল ও সহ-সভাপতি আরিফুল ইসলামকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন মেয়াদে বহিস্কার করে। গত ৭ ফেব্রুয়ারি এহসান রফিককে মারধর করে ছাত্রলীগ। চট্টগ্রাম লালদিঘীর মাঠে সাবেক মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধূরীর স্মরণ সভায় ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সিলেটের বিয়ানীবাজার সরকারী কলেজে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ইমন নামে এক ছাত্র আহত হয়। ছাত্রলীগ পল্লব গ্রুপ ও স্বাধীন গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। ২৭ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম ইঞ্জিনিয়ার্স ইনষ্টিটিউটে উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, গুলি, ককটেল বিস্ফোরণ ও অবশেষে সম্মেলনটি পন্ড হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন পূর্তমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগ প্রচার সম্পাদক ডঃ হাসান মাহমুদ, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবিএম ফজলে করীম চৌধূরী, সাধারন সম্পাদক এম.এ সালাম, ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি সাকিব হাসান ও সাধারন সম্পাদক এস.এম জাকির হোসেন। সংঘর্ষে রবিউল ইসলাম, সবুজ আহমেদ, নিপু হাওলাদার, সাজ্জাদুর রহমান ও রিফাত আহমেদসহ ১০ জন আহত হয়। গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন উত্তেজিত হয়ে এক ছাত্রলীগ নেতাকে কিল, ঘুষি ও লাথি মারেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিবির মনে করে শহীদ মিনার চত্ত্বর থেকে ছাত্রলীগ বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারন সম্পাদক রুনুর উপস্থিতিতে অন্যান্য নেতা-কর্মীরা ১৬ ছাত্রকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের ২২৮ ও ২৩১নং কক্ষে নিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে ৯ জনকে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশে দেয়া ছাত্ররা হলো- শামসুজ্জামান, মিজানুর রহমান, রহমতুল্লাহ, মনিরুল ইসলাম, তানজীম ইসলাম, ইয়াকুব আলী, মাসুম, তন্ময় ও গোলাম রাব্বি।
২৮ ফেব্রুয়ারি কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে বশির উদ্দিন নামে এক রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে জেলা ছাত্রলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ জামান বিন শহীদ অন্তর ও তার সমর্থকরা হাসপাতালে ব্যাপক ভাংচুর করে ও কর্তব্যরত ডাঃ ইশরাত হুমায়রাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করে। হাসপাতাল ক্যাম্প পুলিশ সদস্য রাশেদুল ইসলাম তাদের নিবৃত করার চেষ্টা করলে জামা ধরে তাকে নাজেহাল করে এবং তার চাকরি খেয়ে নেবার হুমকি দেয়। এ সময় অন্তর তার ভিজিটিং কার্ড বের দিয়ে বলে-“এই দ্যাখ, চিনে রাখ, এটা তোর বাপজান”। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীসহ ২৬ জন বিভিন্ন মেয়াদে বহিস্কৃত হয়। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষের জেরে এই বহিস্কারাদেশ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। দন্ডিতরা হলো- তিন বছরের জন্য বহিস্কৃত জাওয়াদ আরোজ, হাসিবুল হক অর্পণ ও শেখ আসিফ মাহমুদ, দু’বছরের জন্য বহিস্কৃত ইফতেখার হাসান, কাজী জুয়েল, রাব্বি হোসেন, রিয়াদ হোসেন, পলাশ সরকার, ফয়সাল আমিন, পিয়াল দেব চৌধূরী, নিতাই চন্দ্র সূত্রধর ও জয়দেব চৌধূরী এবং এক বছরের জন্য বহিস্কৃত হয় দীপ্ত দত্ত, স্বপন কান্তি দাস, সাখাওয়াত হোসেন, সাব্বির মাহমুদ, আরিফুল ইসলাম, শাহ মুহাম্মদ নাজমুস সাকিব, ইয়াহিয়া মাসুদ, দেবজিত ঘোষ, সৌমিত্র আচার্য্য, মাহির হোসেন, রায়হানুজ্জামান, মাশরুখ আরাফাত রিসান, তানভীর জামান ও মিজানুর রহমান। ফেনী সরকারী কলেজে পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মোঃ হাসানকে নিজ দলীয় প্রতিপক্ষ গ্রুপ কুপিয়েছে। মাদক কারবারীতে বাধা দেয়ায় হিরা ও তানভীরসহ কয়েকজন এ ঘটনা ঘটায়। রংপুর রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির সামনে এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। ছাত্রলীগ কর্মী তরিকুল ইসলাম পিয়াল এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় ছাত্রলীগ সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তৌফিকুর রহমান তুষার বাধা দিলে পিয়াল সিনিয়র তুষারকে থাপ্পড় মারে। পরে ওই দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়, ফলে প্রিতম আগারওয়ালা, মোস্তফা ও রাসেলসহ ৫ জন আহত হয়। নারায়নগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জের ভুলতা বাজার এলাকায় ছাত্রলীগের দলীয় কোন্দলে দূর্জয় গ্রুপ প্রতিপক্ষ গ্রুপের কর্মী আরিফ হোসেনের পায়ের রগ ও আঙ্গুল কর্তন করে। আরেক ঘটনায় ছাত্রলীগ কর্মী নূর আলম ও ইমন কর্মী দূর্জয়কে লাঠি পেটা করে। অপর ঘটনায় দূর্জয় তার প্রতিপক্ষ সুমনের পিতা জিন্নাত হোসেনকে মারপিট করে। বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে প্রতীক, ইশতিয়াক, শরিফুল আলম, আজাদ ও রাজন আহত হয়। চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানা পুলিশ সুদীপ্ত হত্যা মামলার আসামী ছাত্রলীগ ক্যাডার “বড় ভাই” রুবেল দে ওরফে রুবেল চাকলাদারকে আটক করে।
যুব লীগ ঃ ৩ ডিসেম্বর ২০১৭ চট্টগ্রামের কদমতলী এলাকার শাহ বিরিয়ানী হাউজে বসে চা খাওয়ার সময় যুবলীগ কর্মী কালা আলমগীর, তার ভাই হৃদয়, সহযোগী শরবত আলমগীর, সেজান ও মামুন যুবদল নেতা হারুন-অর-রশীদকে পিটিয়ে, কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে। শরবত আলমগীর ও মামুন পুলিশের কাছে আটক হয়ে আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দেয়। বিলম্বে রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা নিশ্চিত হওয়ায় এ মাসের কলামে তা প্রকাশ করা হলো। ৩ ফেব্রুয়ারি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ছয়ানী ইউনিয়ন যুবলীগের চাঁদাবাজী ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ। যুবলীগ নেতা বাবু গ্রুপ ও টিটু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে বদিউর রহমান, মোহন ও নাসির আলমসহ আহত ১০ জন। ৪ ফেব্রুয়ারি লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে ২০০ পিস ইয়াবাসহ দরবেশপুর ইউনিয়ন যুবলীগ যুগ্ম-আহবায়ক আতিক হাসানকে গাছিবাড়ীর সামনে থেকে আটক করে পুলিশ। ৫ ফেব্রুয়ারি ঢাকার আশুলিয়ার বাইপাইলে এলাহী কমিউনিটি সেন্টারে যুবলীগ থানা জরুরী বর্ধিত সভায় হুমকি দেয়া হয়, ৮ ফেব্রুয়ারি বেগম খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের দিন বিএনপি-জামায়াতকে ঘর থেকে বের হতে দেয়া হবে না। ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার খিলক্ষেত থেকে ৩০ পিস ইয়াবাসহ যুবলীগ নেতা আক্তার হোসেন ও তার দুই সহযোগীকে আটক করে পুলিশ। ৯ ফেব্রুয়ারি নোয়াখালীর চাটখিলে হাজীর বাজার এলাকায় পুলিশের পরিচয়ে যুবলীগ নেতা ইকবাল বাহার শরীফের নেতৃত্বে মজিবুর রহমান শরীফ, জামাল ও কামাল গং, মামার বাড়ীতে বেড়াতে আসা এক তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। প্রথমে তারা পুলিশের পরিচয়ে বাড়ীতে ঢুকে মেয়ের জাতীয় পরিচয় পত্র চায়, তা দিতে না পারায় তাকে ধরে নিয়ে পালাক্রমে এই ধর্ষণ করে। থানায় মামলা দিতে গেলে ওসি যুবলীগ নেতার নাম বাদ দিয়ে মামলা করতে বলে এবং সেভাবে বাদী মামলা দিতে বাধ্য হয়।
১১ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজারের চকরিয়ায় যুবলীগের চাঁদাবাজীর কারনে সংবাদ সম্মেলন করে দুই উপজেলায় পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয় পরিবহন শ্রমিকরা। ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে উপজেলা যুবলীগের কমিটি গঠন নিয়ে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ও গুলিতে ৬ জন আহত হয়। উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক আবুল খায়ের ও যুগ্ম-আহবায়ক মতিউর রহমান গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে দেলোয়ার জাহান মামুন, সুজন, এ.কে.এম অমিত উল্লাহ, হিরণ, আব্দুল্লাহ ও কামাল আহত হয়। ১৭ ফেব্রুয়ারি লক্ষ্মীপুরের কমলনগর চৌধূরী বাজারে যুবলীগ নেতা-কর্মীরা এক নিরীহ পরিবারের দোকান দখল কালে তারা বাধা দিলে হুমায়ুন, মামুন, আনোয়ার হোসেন, দেলোয়ার হোসেন ও সাহাব উদ্দিন আহত হয়। স্থানীয় যুবলীগ নেতা ইমান আলী ও গ্রাম্য ডাক্তার সবুজের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী এই হামলা, ভাংচুর ও লটপাট করে। ১৯ ফেব্রুয়ারি পাবনার বেড়া থেকে সম্ভুপুরা গ্রামে যুবলীগ কর্মী আব্দুর রাজ্জাককে ১৭০ পিস ইয়াবাসহ তার বাড়ী পুলিশ আটক করে। নারায়নগঞ্জ সোনারগাঁওয়ের মজমপুর বাজার এলাকায় যুবলীগ নেতা দুলাল ভূঁইয়ার ড্রেনের পানি রাস্তা ভেঙ্গে খানাখন্দ সৃষ্টি করে, ফলে এলাকাবাসী চরম ভোগান্তিতে পড়ে। ২০ ফেব্রুয়ারি পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় নলী তুলাতলা গ্রামে জাতীয় পার্টির কর্মী সভায় ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবলীগ নেতা মিরাজ মিয়ার নির্দেশে জাহিদুল, পলাশ, সুমন, রাসেল ও আল-আমিনের নেতৃত্বে হামলা করলে জাকির হোসেন নামে ১ জন আহত হয়। ২১ ফেব্রুয়ারি নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে একুশের প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে ফুল দেয়াকে কেন্দ্র যুবলীগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২ জন। যুবলীগ নেতা আব্দুল বারী পাইলট ও ফণিভূষণ মজুমদার গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রাশেদুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগ নেতা মশিয়ার রহমান আহত হয়।
২২ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামে রেলওয়ের কোটি টাকার টেন্ডার দখল নিয়ে সংঘর্ষে ২ জন নিহত হওয়া মামলার চার্জসীট দাখিল করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশন (পিআইবি)। ২০১৩ সালের ২৪ জুনের ঘটনায় সাজু পালিত ও শিশু আরমান নিহত হয়। মামলাটি দীর্ঘ তদন্ত শেষে যুবলীগ কেন্দ্রীয় উপ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক হেলাল আকবর চৌধূরী বাবর, ছাত্রলীগ বহিস্কৃত কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক সাইফুল আলম লিমন, ছাত্রলীগ সাবেক চবি সভাপতি আলমগীর টিপু, যুবলীগ ক্যাডার খোকন চন্দ্র তাঁতি, দিদারুল আলম দিদার, মশিউর রহমান দিদার ও অজিত বিশ্বাসসহ ৬৪ জনের নামে এই অভিযোগ পত্র দাখিল করা হয়। ময়মনসিংহ বিভাগ উন্নয়নের কাজে ভূমি অধিগ্রহন সংক্রান্ত নোটিশ জারি করে ফিরে আসার সময় পুলিশের উপর হামলা করে সিরতা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি আবুল কাশেমসহ অনেকে। এ ঘটনায় পুলিশ আবুল কাশেমকে আটক করে। ২৫ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ১নং গেটে যুবলীগের হামলায় ছাত্রলীগ কর্মী প্রবাল পাল ও রোকনুদ্দিন আহত হয়। পিরোজপুরের ইন্দুরকানিতে স্ত্রী ও শাশুড়ীকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের জামুয়া ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারন সম্পাদক শিমুল হাওলাদারকে আটকের পর আদালত তাকে কারাগারে পাঠায়। বিগত ১০ অক্টোবর ২০১৬ ইন্দুরকানির গাজীপুর এলাকায় এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ২৬ ফেব্রুয়ারি মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় ব্যাডমিন্টন খেলাকে কেন্দ্র করে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ৮ পুলিশসহ আহত ৩০ জন। যুবলীগ নেতা সিপার উদ্দিন আহমেদ গ্রুপ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মাহবুবুর রহমান মান্না গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা উজ্জ্বল আহমেদ, মশিউর রহমান, সালমান, সাবুর, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সিপার উদ্দিন আহমেদ, এহসান আহমেদ টিপু, নবীন লীগের রাহিম আহমেদ মান্না, ছাত্রলীগ উপজেলা সাধারন সম্পাদক আবু সায়হাম রুমেল, কুলাউড়া সরকারী কলেজ ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক জাকারিয়া আল-জেবু, পুলিশের এসআই মাসুদ, এসআই জহির ও এসআই হারুনসহ ৩০ জন আহত হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ