বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

কথা সাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেনের জন্মবার্ষিকীতে গ্রামীণ মেলা

মাহমুদ শরীফ, কুমারখালী (কুষ্টিয়া): অমর কথা সাহিত্যিক কালজ্বয়ী ঔপন্যাসিক “বিষাদ সিন্ধুর” রচয়িতা মীর মর্শারফ হোসেনের ১৭০তম জন্মবার্ষিকী উদ্যাপন উপলক্ষে তিন দিনের অনুষ্ঠানমালার পাশাপাশি ঐতিহ্যবাহি গ্রামীণ মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন শেষ হয়েছে। কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন গত সোমবার সন্ধ্যায় লাহিনীপাড়ায় অবস্থিত বিশ্ববরেণ্য এ সাহিত্যিকের বাস্তভিটায় আলোচনা অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে মূল পর্বের উদ্বোধন করলেও পরের দুই দিন গ্রামীণ ঐতিহ্যে সম্পৃক্ত লাঠি খেলার মধ্যদিয়ে জমে উঠে গ্রামীণ মেলা। দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার দুপুরে এ মেলা ঘুরে দেখা যায়, গ্রামীণ জীবন-যাত্রা আর কৃষ্টি কালচারের সাথে মানানসই সাংসারিক তৈজসপত্র এবং এলাকার তৈরী হস্ত ও কুটিরশিল্প সামগ্রীর বিপুল সমারোহতার সাথে বিনোদনপূর্ণ নাগরদৌলা মাতিয়ে তোলে এ মেলাকে। স্বল্প-পরিসরে হলেও লাহিনীপাড়ার মানুষের সংস্কৃতির সাথে মিশে থাকা তাঁদের গর্ব এ প্রবাদপুরুষকে স্মরণ করতে কুষ্টিয়াসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষের সমারোহতা ঘটে সেখানে। বিভিন্ন প্রকার খাদ্যসামগ্রীর স্টলও যেন প্রাণস্পন্দিত করে ছেলে-বুড়ো সকলকে। বাংলা সাহিত্যের দরবারে আলোক উজ্জ্বল গদ্যধারার এই প্রবাদ পুরুষকে স্মরণ ও তাঁর স্মৃতিচারণে জেলা প্রশাসনের এ ক্ষুদ্র আয়োজনের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করলেন এলাকাবাসি। তাঁরা বলছেন, কালজ্বয়ী ঔপন্যাসিকের সাহিত্যকর্মের সাথে জড়িত সকল স্মৃতিগুলো সংরক্ষণে ২০০৮ সালে এখানে মিউজিয়াম-কাম-পাঠাগার নির্মিত হলেও পর্যটক আকর্ষণে নেই কোনো ব্যবস্থা। জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকীতে আলোচনা আর ক্ষুদ্র পরিসরে মেলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে মর্শারফের স্মৃতিচারণ। কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক জহির রায়হান বলেন, অমর এই কথা সাহিত্যিকের জীবনকর্মে জড়িত সব স্মৃতিগুলো সংরক্ষণের চেষ্টা চলছে। আমরা ভবিষ্যতে আরো বৃহত্তর আয়োজনে কীর্তিমান এ সাহিত্যিককে স্মরণ করার চেষ্টা চালাবো। গবেষকেরা বলছেন, কালজ্বয়ী ঔপন্যাসিককে স্মরণের পাশাপাশি তাঁর স্মৃতিগুলো সংরক্ষণে আরো উদ্যোগী হওয়া অত্যাবশ্যক। উল্লেখ্য যে, ১৮৪৭ সালের ১৩নভেম্বর তারিখে কুমারখালীর লাহিনীপাড়ায় জন্মগ্রহণ এবং ১৯১১ সালের ১৯ডিসেম্বরে মৃত্যুবরণ করেন অমর কথাসাহিত্যিক কালজ্বয়ী ঔপন্যাসিক “বিষাদ সিন্ধুর” রচয়িতা মীর মর্শারফ হোসেন। জেলা প্রশাসন আয়োজিত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলমান এ মেলার মধ্যদিয়ে গত বৃহস্পতিবার শেষ হয় কথাসাহিত্যিক মীর মর্শারফ স্মরণোৎসব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ