শুক্রবার ১৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বগুড়ায় পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় গলায় ওড়না পেঁচিয়ে স্ত্রীকে হত্যা

বগুড়া অফিস : বগুড়ার মহাস্থানে পরকীয়ায় বাধা দেয়ার স্বামী রাজু মিয়া (২৮) গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করেছে নববধূ শারমিনকে (১৬)। বুধবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মহাস্থানগড়ের ঈদগাহ মাঠের পশ্চিম দিকে শালবাগানের পাশে কয়েক বছর আগে গড়ে ওঠা নতুন গ্রামে প্রায় ৬ বছর আগে আশ্রয় নেয় নারায়ণগঞ্জের আলিম উদ্দিন শাহের ছেলে রাজু মিয়া (২৮)। রাজু পেশায় কাপড় ব্যবসায়ী। সে মহাস্থান এলাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় কাপড় ফেরি করে বিক্রি করতো।
ওই গ্রামে রাজু একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতো।  ব্যবসার সুবাদে স্থানীয়দের সঙ্গে রাজু গভীর সখ্যতা গড়ে তোলে। কিছুদিন পর রাজু ফেরি ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে স্থানীয় লিপি বেগমের বাড়ি ভাড়া নিয়ে রাস্তার পাশে একটি কাপড়ের দোকান দেয়। দোকানে যাতায়াতের কারণে স্থানীয় প্রতাববাজু গ্রামের সবজি ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলামের মেয়ে শারমিন আক্তারের সাথে পরিচয় ঘটে। তাদের পরিচিতি থেকে শুরু হয় ভালোবাসা। এক পর্যায়ে পাঁচ মাস আগে রাজু শারমিনকে বিয়ে করে। মাসখানেক পর রাজুর আরেক মেয়ের সাথে পরকীয়া সম্পর্ক জানাজানি হয়। এনিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মাঝে মধ্যেই ঝগড়া বিবাদ হতো। স্থানীয়রা জানায় রাজু বিয়ের পরে পরকীয়া নিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়।
এর এক পর্যায়ে গভীর রাতে রাজু শারমিনকে শয়ন কক্ষে খাটের উপর ফেলে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করে ঘরে তালা দিয়ে পালিয়ে যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ