শনিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২১
Online Edition

তিন দিনেই দ্বিতীয় টেস্ট জিতে নিলো দঃ আফ্রিকা

স্পোর্টসা ডেস্ক : ডানেডিনে প্রথম টেস্টের শেষ দিন বৃষ্টিতে ভেসে গিয়ে ম্যাচ হয়েছিল ড্র। ওয়েলিংটনে দ্বিতীয় টেস্ট  তিন দিনেই নিউজিল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আর দক্ষিণ আফ্রিকার জয়ের নায়ক কেশব মহারাজ। বাঁহাতি এই স্পিনার দুর্দান্ত বোলিংয়ে নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংস গুঁড়িয়ে দিয়েছেন। ৯১ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে নিউজিল্যান্ড অলআউট মাত্র ১৭১ রানে। মহারাজ ৪০ রানে নিয়েছেন ৬ উইকেট। স্টিফেন কুক ও ডিন এলগারের উইকেট হারিয়ে ৮১ রানের লক্ষ্যটা সহজেই পেরিয়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। অথচ দ্বিতীয় দিনের লাঞ্চের আগে প্রথম ইনিংসে ৯৪ রানেই ৬ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। সেখান থেকে সপ্তম উইকেটে কুইন্টন ডি কক ও টেম্বা বাভুমার ১৬০ রান আর শেষ উইকেটে ভারনন ফিল্যান্ডার ও মরনে মরকেলের ৫৭ রানের দুটি জুটি প্রথম ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকাকে এনে দেয় ৯১ রানের ামূল্যবান লিড। ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে দ্বিতীয় দিনের ৯ উইকেটে ৩৪৯ রানের সঙ্গে গতকাল তৃতীয় দিনে আর ১০ রান যোগ করে অলআউট হয় সফরকারীরা। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে মরকেল করেন ৪০। ফিল্যান্ডার অপরাজিত ছিলেন ৩৭ রানে। তাদের ৫৭ রানের জুটিই শেষ উইকেটে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বোচ্চ। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে নিউজিল্যান্ডের শুরটা ভালো হয়নি। মরকেল তার প্রথম স্পেলেই ফিরিয়ে দেন ওপেনার টম ল্যাথাম ও অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে। দ্বিতীয় ইনিংসেও দুই অঙ্ক ছুঁতে ব্যর্থ এই দুজন। নিউজিল্যান্ডের স্কোর তখন ২ উইকেটে ২৬। লাঞ্চের পর দ্বিতীয় ওভারেই ব্রুমকে ফিরিয়ে ৩৮ রানের জুটি ভাঙেন মরকেল। দ্বিতীয় সেশনে ১৪ ওভারের স্পেলে পাঁচ বলের মধ্যে হেনরি নিকোলস ও জেমস নিশামকে বিদায় করেন মহারাজ। ষষ্ঠ উইকেটে বিজে ওয়াটলিংয়ের সঙ্গে রাভালের ৬৫ রানের জুটি স্বাগতিকদের কিছুটা আশার আলো দেখিয়েছিল। কিন্তু এরপরই শুর মহারাজ-জাদু। বাঁহাতি স্পিনারের বল ডাউন দ্য উইকেটে এসে খেলতে গিয়ে স্টাম্পড হয়ে ফেরেন রাফাল (৮০)। তার বিদায়ের পরই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে কিউইদের লোয়ার অর্ডার। ৩৬ বল আর ১৬ রানের মধ্যে শেষ ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭১ রানেই অলআউট হয়ে যায় স্বাগতিকরা। ডানেডিনে প্রথম টেস্টে এক ইনিংসে বোলিং করে মহারাজ ক্যারিয়ারে প্রথমবার নিয়েছিলেন ৫ উইকেট। বাঁহাতি স্পিনার ওয়েলিংটনে দ্বিতীয় ইনিংসে ৪০ রানে নিলেন ৬ উইকেট। মরকেলের।দিনের ১৯ ওভার বাকি থাকতে ৮১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১৮ রানে কুকের (১১) উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। হাশিম আমলার সঙ্গে দলকে ৪৮ পর্যন্ত টেনে নিয়ে ফেরেন আরেক ওপেনার এলগার (১৭)। ১৯ ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকা তুলেছিল ২ উইকেটে ৪৮। তৃতীয় দিনেই ম্যাচ নিষ্পত্তির জন্য সময় বাড়ানো হয় আরো ৩০ মিনিট। তবে আমলা ও জেপি ডুমিনির ৩৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে সেই সময়ের আগেই জয় নিশ্চিত করে দক্ষিণ আফ্রিকা। আমলা ৩৮ ও ডুমিনি ১৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ম্যাচসেরা অবশ্যই মহারাজ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ