বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

চুয়াডাঙ্গাকে মাদকমুক্ত করার উদ্যোগ নেয়ার পর ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপারের বদলী

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা : চুয়াডাঙ্গা জেলার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন চুয়াডাঙ্গা জেলা থেকে মাদক মুক্ত করার কর্মসূচি বাস্তবায়ন শুরু করার পরপরই তাকে চুয়াডাঙ্গা থেকে বদলীর আদেশ জারি করায় চুয়াডাঙ্গার সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। গত সোমবার অতিরিক্ত ডিআইজি (সংস্থাপন) হাবিবুর রহমান, বিপিএম (বার), পিপিএম কর্তৃক স্বাক্ষরিত আদেশে এ তথ্য জানানো হয়। ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার চুয়াডাঙ্গার তিন উপজেলা থেকে মাদক মুক্ত করার জন্য যথেষ্ট সাড়া পেলেও সীমান্ত এলাকা দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা থেকে মাদক নির্মূল করতে পারছেন না। এদিকে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেনের বদলীকে সাধারণ মানুষ মাদকের সাথে আপোষ না করার জন্য তাকে শাস্তিমুলক বদলী বলে মনে করছে।
উল্লেখ্য যে, চুয়াডাঙ্গা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপারের দায়িত্ব নেবার পর থেকেই জেলার মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড নির্মূল করার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে। সে লক্ষ্যে জেলার সাংবাদিকদের ইতোমধ্যে মতবিনিময় করেছেন এবং মাদকের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করেছেন। এই উদ্যোগের মাত্র কয়েক দিনের মধ্যেই প্রায় শতাধিক মাদক ব্যবসায়ী আত্মসমর্পন করে।
তিনি যখন মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে  কাজ করার অঙ্গীকার নিয়ে মাঠে নেমেছেন ঠিক তখনই তাকে চুয়াডাঙ্গা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয় ঢাকায় বদলী করা হয়। জেলার সাধারণ মানুষ যখন নিশ্চিন্তে রাত কাটাচ্ছিল ঠিক তখনই তার বদলীর খবর শুনে দেখা গেছে হতাশা। সাধারণ মানুষ বলতে শুরু করেছে ভাল কাজ করলে তার বদলী নিশ্চিত।
এদিকে জেলার চুয়াডাঙ্গা,জীবননগর এবং আলমডাঙ্গার মাদক ব্যবসায়ীদের নিয়ন্ত্রণ করা গেলেও দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা এলাকার মাদক ব্যবসায়ীরা রয়ে গেছে ধরা ছোয়ার বাইরে। তিনি দামুড়হুদা উপজেলাকে দ্রুত সময়ের মধ্যে মাদকমুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন।
এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন বলেছেন বাংলাদেশকে সবচেয়ে বড় যেসব সমষ্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো মাদক। আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্ম মাদকের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ছে তাতে আমরা সকলেই সংকিত। এই মুহূর্তে যুবসমাজ প্রধান মাদক হিসেবে ইয়াবা ব্যবহার করছে। এসব মাদক ব্যবসা ও ব্যবসায়ীকে রুখতে না পারলে মাদকের বিস্তারের সঙ্গে সঙ্গে অপরাধেরও বিস্তার ঘটতে থাকবে ব্যাপকভাবে। এলাকার সূধী সমাজের দাবি ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেনের চুয়াডাঙ্গা জেলা মাদকমুক্ত করতে অনতি বিলম্বে তার বদলীর আদেশ বাতিল করা হোক।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ