বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

জম্মু-কাশ্মীরের জাদুঘরে পবিত্র কোরআনের প্রাচীন পাণ্ডুলিপি

সংগ্রাম ডেস্ক : জম্মু-কাশ্মীরের সেন্ট্রাল এশিয়ান মিউজিয়ামে (Central Asian Museum)  দর্শনার্থীদের পরিদর্শনের জন্য পবিত্র কোরআনের প্রাচীন কিছু পাণ্ডুলিপি ও ইসলামী ঐতিহ্যের বিভিন্ন স্মারক জনসাধারণের পরিদর্শনের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। খুলে দেওয়ার পর থেকে দর্শকেরা ভিড় করছেন সেখানে।

ঐতিহাসিক এসব সংগ্রহের মাঝে রয়েছে, বিশ্বের বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত কোরআন শরিফ, পবিত্র কোরআনের প্রাচীন কিছু পাণ্ডুলিপি, শেষনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.-)এর জীবনীসমৃদ্ধ গ্রন্থ, হস্তলিখিত ফতোয়ার কিতাব ফতোয়ায়ে আলমগীরির কপি ও বিভিন্ন ধর্মীয় গ্রন্থ।

জম্মু-কাশ্মীরের দাতব্য সংস্থা মুঈনুল ইসলাম আঞ্জুমানের উদ্যোগে, পর্যটন কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় মিউজিয়ামটি ২০১৫ সালে নির্মিত হয়েছে।

এ ছাড়াও ওই মিউজিয়ামে স্থানীয় ঐতিহ্যবাহী কারুশিল্প, মধ্য এশিয়ার হস্তলিখিত বিভিন্ন পাণ্ডুলিপি, প্রাচীন আমলে মুদ্রা ও ঐতিহাসিক কিছু শিল্পকর্মও প্রদর্শনের জন্য রাখা হয়েছে।

সেন্ট্রাল এশিয়ান মিউজিয়ামের বাইরের অংশ

এগুলো তিব্বত ও কাশ্মীরের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। যা বিভিন্ন মানুষের কাছে সংরক্ষিত ছিলো। এসব মূল্যবান শিল্পকর্ম প্রায় ৪০০ বছরের প্রাচীন।

জম্মু-কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) নেত্রী মেহবুবা মুফতি পবিত্র কোরআনের প্রাচীন পাণ্ডুলিপি প্রদর্শনের উদ্বোধন করেছেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নাঈমুল আখতার, স্থানীয় ইতিহাসবিদ আবদুল গনি শেখ ও মুঈনুল ইসলাম আঞ্জুমানের নেতৃবৃন্দ। 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের সাংস্কৃতিক শিকড় আঁকড়ে ধরে রাখতে হবে, যাতে করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের নিকটে তা পৌঁছে দেওয়া যায় এবং তারা এ থেকে শিক্ষা অর্জন করে। 

সেই সঙ্গে তিনি জাদুঘরের জন্য ২০ লাখ রুপি অনুদানেরও ঘোষণা দেন। বাংলানিউজ

-কর্তৃপক্ষ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ